কলকাতা: বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে একাধিকবার আক্রমণ করেছেন তিনি। কখনও বলেছেন, ওঁকে গুলি করে মারা উচিত আবার কখনও দিলীপ ঘোষকে ‘ নিজের পিঠের চামড়া ঠিক রাখুন’ বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। কিন্তু এই প্রথম তৃণমূলের দাপুটে নেতা অনুব্রত মন্ডল প্রকাশ্যে বললেন, ‘দিলীপ ঘোষ লোকটা খারাপ নয়’। দু’জনেই দু’দলের মুখ। রাজনীতির ময়দান তো বটেই বাক্‌ যুদ্ধেও দু’জনের মনোভাব, ‘বিনা যুদ্ধে নাহি দিব, সূচ্যগ্র মেদিনী।’

একজন বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ এবং অন্যজন তৃণমূল কংগ্রেসের বীরভূম জেলার সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল। বছরভর ডায়লগে ডায়লগে খবরের শিরোনামে থাকেন এই দুই নেতা। হিট ডায়ালগে ‘সমগোত্রীয়’ বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে তাঁর ব্যক্তিগতভাবে কেমন লাগে?

এই প্রশ্নের জবাবে মঙ্গলবার কলকাতা 24×7-এর লাইভে তৃণমূলের বীরভূমের জেলা সভাপতি অনুব্রত বললেন, “দিলীপ ঘোষ লোকটা খারাপ না। মজার লোক।” তবে দিলীপ ঘোষ সম্পর্কে এমন নরম মন্তব্য করেও কিন্তু তাঁকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি অনুব্রত। তিনি বলেন, “দিলীপ ঘোষ মজার লোক হলেও ওঁর ভাষা জ্ঞান একদম নেই। হানড্রেড পার্সেন্ট মিথ্যে কথা বলে। মোদী-অমিত শাহ যা শিখিয়ে দেয় তাই বলে।”

প্রসঙ্গত, দিলীপ ঘোষের বিতর্কিত মন্তব্যের পাল্টা জবাব দিতে গিয়ে একাধিকবার নিজেই বিতর্কে জড়িয়েছেন অনুব্রত মন্ডল। দিলীপ ঘোষ পুলিশের পিঠের চামড়া তুলে নেওয়ার হুঁশিয়ারি দিলে জবাবে অনুব্রত তাঁকে বলেছেন, “অন্যের পিঠের চামড়া তুলে দেওয়ার কথা বলে লাভ নেই। নিজের পিঠের চামড়া ঠিক রাখুন।”

আবার সিএএ বিরোধী আন্দোলনকারীদের গুলি করে মারার হুমকি দেওয়ায় দিলীপ ঘোষকে পাল্টা অনুব্রত বলেছিলেন, “দিলীপ ঘোষকেই গুলি করে মারা উচিত।”

একবার দিলীপ ঘোষ বলেছিলেন, “বিদেশি গোরু গো মাতা নয়।” তাঁর কথায়, “আমাদের দেশি গাভির পিঠের কুঁজে সোনা থাকে। তাই দেশি গোরুর দুধের রং সোনালি হয়। আর বিদেশি গোরু তো হাম্বা হাম্বাও ডাকে না।”

এপ্রসঙ্গে অনুব্রত মণ্ডলকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “পাগলে কিনা বলে। জলাতঙ্ক রোগ জানেন? কুকুরে কামড়ালে ১০ বছর পর হয়, ওর সেটাই হয়েছে। কেন যে ডাক্তার দেখাচ্ছে না। অবশ্য জলাতঙ্ক রোগ হলে অনেক কষ্ট হয়, আলফাল বকে। এখনও পর্যন্ত জলাতঙ্ক রোগের কোন ওষুধ বের হয় নাই।সেজন্যই মাঝে মধ্যে বীরভূমে এসে মা তারাকে বলে রোগ থেকে বাঁচাও।”

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।