ফাইল ছবি

দিঘাঃ বৃহস্পতিবার সকালে দিঘা সমুদ্র উপকুল এলাকা থেকে হঠাত করে মানুষ জন দেখতে পান যে গভীর সমুদ্রের মাঝে একটি বড় আকৃতির কিছু ভেসে রয়েছে। আমফান ঝড়ের পর থেকে স্থানিয়দের মধ্যে আতংক রয়েছে মনের মধ্যে। তার উপর এই বস্তুটিকে জলে ভাসতে দেখে নতুন করে আতংক ছড়াতে থাকে। কিন্তু পরে বিষয়তই স্পষ্ট হয়।

দিঘার প্রথম ঘাট থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরত্বে দেখা মেলা একটি বয়ার। এই বয়ার উপস্থিতিকে কেন্দ্র করে উপকূলবাসীর মধ্যে ছড়ালো চাঞ্চল্য। করোনা ও আমফানের আতঙ্ক এখনও দগদগে। সময় খুব খারাপ, তাই এই অস্পষ্ট বস্তুটিকে দেখতে ভিড় জমে যায়। লোকডাউনের কারণে সমুদ্রে মৎস শিকার বন্ধ রেখেছেন স্থানীয় মৎস জীবীরা, কোস্টাল পুলিশের নজরদারি। স্বাভাবিক কারণে মানুষের মধ্যে চাঞ্চল্য ছড়ায়।

সমুদ্র স্রোতের কারণে বস্তুটি কাছাকাছি এলে বোঝা যায় এটি বন্দর এলাকার বয়া। আসলে জলে ভাসমান স্থলনির্দেশক বস্তু বিশেষ। লৌহ দন্ড যার দ্বারা জাহাজ চালনার সুবিধার্থে চেনেল মার্কিং করা হয়। নদী বা সমুদ্রের চড়ার অবস্থান নির্দেশক অথবা তীরের সন্নিকটে জাহার, স্টিমার ইত্যাদির পক্ষে নোঙরযোগ্য স্থান নির্দেশক হিসাবে এই বয়া গুলিকে কাজে লাগানো হয়।

এক্ষেত্রে উপকূল বাসীদের মতে কাছাকছি হলদিয়া অথবা ধামরা পোর্ট থেকে সমুদ্র স্রোতে ভেসে চলে আসতে পারে বলে অনুমান করছেন। দিঘার সমুদ্রের নাব্যতা কম থাকায় এখানে বড় জাহাজ বা স্টিমার ঢুকতে পারে না। কোন অজ্ঞাত কারণে বয়াটি দিঘার সমুদ্রে ভেসে ভেসে চলে আসে। স্থানীয় প্রশাসন বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।

  https://www.facebook.com/kolkata24x7/videos/617321948922847/

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প