মেদিনীপুরঃ  শুক্রবারের পর ফের শনিবার। প্রবল সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস দিঘা, শঙ্করপুর উপকূলে। যার ফলে নতুন করে প্লাবিত উপকূলের দুটি গ্রাম। সমুদ্রের নোনা জল ঢুকেছে চাষ জমিতেও। এমনই ঘটনা ঘটেছে পূর্ব মেদিনীপুরের শংকরপুর, দিঘাতে। আর যার ফলে তীব্র আতঙ্ক দেখা দিয়েছে উপকূলের কয়েকটি গ্রামের বাসিন্দাদের মধ্যে। দিঘাতে গার্ড-ওয়াল উপচে জল আসছে। পর্যটকদের সমুদ্রে নামতে দেওয়া হচ্ছে না। গার্ড ওয়ালে দাঁড়িয়ে জলোচ্ছ্বাসের মজা নিচ্ছেন দিঘাতে যাওয়া পর্যটকরা।

অন্যদিকে, স্থানীয় সূত্রে খবর প্রায় শঙ্করপুরে প্রায় ৩৫টি বাড়ীতে সমুদ্রের জল ঢুকে পড়েছে। প্রায় ৭০ হেক্টর চাষ জমিতে নোনা জল ঢুকে চাষ নষ্ট হয়েছে। শঙ্করপুরেও আগ্রাসী ঢেউয়ের জল গার্ড ওয়াল টপকে হু হু করে ঢুকে পড়েছে। প্রশাসনের তরফে উঁচু স্থানে অনেক পরিবারকে সরানো হয়েছে। জল ঢুকে প্লাবিত হয়েছে জামড়া শংকরপুর গ্রাম।

৩৫টি বাড়ির প্রায় ৪৫টি পরিবার বিপর্যস্ত। বিডিও, জনপ্রতিনিধিরা এলাকা পরিদর্শনে এলে ক্ষোভ উগরে দেন স্থানীয় মানুষ৷ প্রায়ই এমন ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ তাঁদের৷ প্রশাসনের তরফ থেকেও কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয় না বলে অভিযোগ৷ এলাকার মানুষ জানিয়েছেন কংক্রিটের বাঁধের দাবি দীর্ঘ দিন ধরে করে আসছেন তাঁরা৷ কিন্তু কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি৷ জসিপুর, চাঁদপুর, জলধা, তাইমা প্রভৃতি গ্রামের বাসিন্দারাও আতঙ্কে রয়েছেন৷ তবে প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে আপদকালীন বাঁধ মেরামতির ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে৷ নজরদারি চলছে গ্রামগুলিতে৷