গুয়াহাটি: শেষমুহূর্তে ফের দাঁড়িয়ে গেল রক্ষণ। ৮০ মিনিট পর্যন্ত এগিয়ে থাকা ম্যাচ হাতছাড়া হল শেষ ১০ মিনিটের ভুলে। বিশেষজ্ঞদের মতে, এগিয়ে থাকা ম্যাচে দ্বিতীয়ার্ধে রক্ষণাত্মক স্ট্র্যাটেজিই ডোবাল ভারতীয় দলকে। অধিনায়ক সুনীল ছেত্রীর কথায়, ‘এই হার মেনে নেওয়া ভীষণ কঠিন ব্যাপার।’

এগিয়ে থাকা ম্যাচে শেষ মুহূর্তে রক্ষণের গাফিলতি বিগত কয়েকমাসে বারংবার কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে ভারতীয় দলে। এএফসি এশিয়ান কাপে যার ফল ভুগতে হয়েছে ব্ল-টাইগার্সদের। রবিবারও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটায় ম্যাচ শেষে যারপরনাই বিধ্বস্ত দেখাচ্ছিল ভারত অধিনায়ককে। বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক কেরিয়ারের ৭২তম গোল করার পরেও পরাজিত দলনায়ক ম্যাচ শেষে জানালেন, ‘ম্যাচে দ্বিতীয়ার্ধে বল আমরা নিজেদের পায়ে রাখতে পারিনি। ওমানের মত শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে বলের পজেশন হারালে স্বাভাবিকভাবেই ম্যাচে তার প্রভাব পড়তে বাধ্য। বিষয়টিতে আমাদের নজর দিতে হবে। তবে ছেলেরা ভালো লড়াই করেছে।’

অধিনায়কের পাশে ম্যাচ হেরে হতাশ দলের ক্রোট কোচ ইগর স্টিম্যাচ। ম্যাচ শেষে জানালেন বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের প্রথম ম্যাচ থেকে তাদের আরও বেশি পাওনা ছিল। এগিয়ে থেকেও এদিনের ম্যাচ হারকে ‘লজ্জাজনক’ আখ্যা দিয়ে স্টিম্যাচ বলেন, আমরা ভুলের খেসারত দিয়েছি। এই ম্যাচে পয়েন্ট আমাদের দ্বিতীয়স্থানে শেষ করার পিছনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নিতে পারত। ভারতীয় দলের কোচের কথায়, ‘আমার মনে হয় অন্তত প্রথমার্ধের খেলার নিরিখে আমাদের এক পয়েন্ট প্রাপ্য ছিল। প্রথমার্ধে আমরাই আধিপত্য বজায় রেখেছিলাম। অনেক সুযোগ তৈরি করেছিলাম যা থেকে প্রথমার্ধেই খেলার ফলাফল নির্ধারণ হয়ে যেতে পারত।’

গুয়াহাটিতে বৃহস্পতিবার ম্যাচের ২৪ মিনিটে ব্র্যান্ডন ফার্নান্ডেজের ফ্রি-কিক থেকে ওমান রক্ষণের নজর এড়িয়ে বাঁ-পায়ের শটে গোল করে যান ছেত্রী। এরপর প্রথমার্ধ জুড়ে দাপট বজায় ছিল ভারতের। একটি ক্ষেত্রে উদান্তা সিংয়ের শট ক্রসবারে প্রতিহত হয়। কিন্তু এগিয়ে থেকে দ্বিতীয়ার্ধে রক্ষণাত্মক স্ট্র্যাটেজি রপ্ত করে নেয় ভারতীয় দল। যা ম্যাচ শেষে কাল হয়ে দাঁড়ায় স্টিম্যাচের দলের জন্য। এপ্রসঙ্গে বলতে গিয়ে দলনায়ক বলেন, দ্বিতীয়ার্ধে আমরা প্রতিপক্ষকে অনেক বেশি বল উপহার দিয়েছি। সম্ভবত এক গোলে এগিয়ে থেকেই ম্যাচ শেষ করতে হবে, এমন একটা ধারণা আমাদের মধ্যে তৈরি হয়ে গিয়েছিল। যার ফল ভোগ করতে হল’

আগামী ১০ সেপ্টেম্বর দোহায় গিয়ে খেলতে হবে কাতারের বিরুদ্ধে। সে ম্যাচ নিয়ে বলতে গিয়ে দলনায়ক জানান, সম্ভবত সবচেয়ে কঠিন ম্যাচ হতে চলেছে ওটা। তবে আমরা লড়াই করব। আজকের মত ছোটখাটো ভুলভ্রান্তি কাতারের বিরুদ্ধে ম্যাচে যাতে না হয়, সেদিকেই নজর থাকবে।’