হায়দরাবাদ: দলের বোলারদের পরামর্শ দিচ্ছেন ভারত অধিনায়ককে বাড়তি ভয় না পাওয়ার, অথচ বিরাট কোহলির উইকেটই ‘কি-ফ্যাক্টর’ বলে বলে মনে করছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ কোচ ফিল সিমন্স। সবমিলিয়ে ভারতের বিরুদ্ধে আসন্ন টি-২০ ও ওয়ান-ডে সিরিজে বিরাটের উইকেট তুলে নেওয়াকে একপ্রকার চ্যালেঞ্জ হিসেবে গ্রহণ করছেন পোলার্ডদের হেডস্যার।

ফিল সিমন্সের কথায়, কোহলিকে আউট করা কষ্টসাধ্য একটা কাজ। আর ঠিক সে কারণেই গতানুগতিকতার বাইরে গিয়ে আসন্ন টি-২০ ও ওয়ান-ডে সিরিজে ভারত অধিনায়ককে আউট করার কিছু ধারণা দিয়েছেন তিনি। যার মধ্যে রয়েছে কোহলিকে স্ট্যাম্প হাতে ব্যাট করানোর প্রস্তাব। পাশাপাশি ওয়ান-ডে ম্যাচগুলোতে কোহলির নামের পাশে ১০০ রান যোগ করে ভারতীয় দলের বাকি ব্যাটসম্যানদের বল করার মতো প্রস্তাব রেখেছেন তিনি। সবমিলিয়ে কোহলিকে বেশি ভয় না পাওয়ার পরামর্শ বাতলেও কোহলিকে প্যাভিলিয়নে ফেরৎ পাঠানোকে ‘দুঃসাধ্য কাজ’ বলেই দাবি পোলার্ডদের হেড কোচের।

একইসঙ্গে এই ভারতীয় দলকে পৃথিবীর যে কোনও প্রান্তে হারানো কঠিন বলে মনে করেন সিমন্স। তাই ঘরের মাটিতে এসে কোহলিদের হারানোর ক্ষেত্রে দলের ক্রিকেটারদের এদেশে খেলার পুরনো অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে বলছেন তিনি। এই প্রসঙ্গে গতবছর ভারতের মাটিতে খেলে যাওয়া টি-২০ ও ওয়ান-ডে সিরিজের কথা তুলে ধরেছেন ক্যারিবিয়ান কোচ। যে সফরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ খুব একটা পিছিয়ে ছিল না বলেই দাবি করেছেন সিমন্স। উদাহরণ হিসেবে ওই সফরে একটি টাই ম্যাচের কথা তুলে ধরেছেন তিনি।

আরও পড়ুন: হার্দিকের পরিবর্তে দলে জায়গা পাকা করার পক্ষপাতী নন শিবম

ক্রিকইনফোকে প্রাক্তন ক্যারিবিয়ান অল-রাউন্ডার তাই বলেছেন, ‘পিছনে ফিরে দেখতে হবে আমরা কী করেছিলাম এবং তাতে নতুন কী যোগ করতে পারি। কারণ, ভারতীয় দলও নিশ্চিতভাবে তাদের খেলার ধরনে বেশকিছু বদল এনেছে। আমাদের গতবারের তুলনায় ভালো পারফরম্যান্স উপহার দিতে হবে কারণ প্রতিপক্ষ হিসেবে ভারতীয় দল মোটেই সহজ নয়।’

আরও পড়ুন: জেনে নিন কাকে কেরিয়ারের কঠিনতম প্রতিদ্বন্দ্বী বাছলেন আক্রম

উল্লেখ্য, ৬ ডিসেম্বর হায়দরাবাদে টি-২০ সিরিজের প্রথম ম্যাচে ভারতের মুখোমুখি ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ৮ ডিসেম্বর ও ১১ ডিসেম্বর টি-২০ সিরিজের বাকি দু’টি ম্যাচ যথাক্রমে তিরুঅনন্তপুরম ও মুম্বইয়ে।