স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: লোকসভা নির্বাচনে দিদির পুলিশের কোনো কাজ থাকবে না। ভোট করবে দাদার পুলিশ৷ কর্মীসভা থেকে এভাবেই তৃণমূলকে হুঁশিয়ারি দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ তিনি বলেন, বিগত নির্বাচনে আমরা ছিলাম দর্শক আসনে, এবার আমরা খেলোয়াড় হিসেবে নামব।রেফারি শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসই হোক বা পুলিশ, তারা থাকবে বুথের ১০০ গজ দূরে। পুলিশ গাছতলায় বিশ্রাম নেবে৷

রবিবার উত্তর ২৪ পরগণার দত্তপুকুরে বিজেপির কর্মিসভা ছিল৷ সেই সভা থেকে রথযাত্রা আটকানো প্রসঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস ও পুলিশকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, গণতান্ত্রিক রক্ষার রথযাত্রার চাকা যে আটকাবে তাতে পিষে যাবে বিরোধীরা।সেইসঙ্গে বলেন, পুলিশকেও সাবধান করেছেন তিনি৷ এদিন পূর্ব বর্ধমানের কালনাতেও হুমকি দিয়েছেন দিলীপ ঘোষ৷ তিনি বলেছেন, “বলছে রথ আটকে দেব। আমি বলছি ওই ভুলটা করবেন না। তাহলে বাড়িতে ফোটো ঝুলবে আপনাদের।”

এদিন দত্তপুকুরে দিলীপ ঘোষ বলেন, দেশের স্বার্থে সারা দেশে এনআরসি হবে৷ বংশপরম্পরায় রাজ্যে থাকা মুসলিমদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আল্লার টুপি পড়েছেন পড়ুন৷ কিন্তু টিএমসির টুপি পড়বেন না। সংসদে এ বিষয়ে বিল আনছেন মোদী। অনুপ্রবেশকারী মুসলিমদের এ দেশ থেকে তাড়াবেন মোদী।

তৃণমূল কংগ্রেসকে একের পর এক হুমকি দিয়ে গেলেও দলের এদিন গোষ্ঠীদকোন্দলকে আড়াল করে রেখেছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি৷ আগে একাধিকবার সহকর্মী মুকুল রায়কে প্রকাশ্যে গুরুত্ব না দিলেও এদিন তিনি ডিফেন্সিভ ছিলেন৷ দলে মুকুল রায়ের পারফর্মেন্স নিয়ে দিলীপ বলেন, যার যেটা গুন, সেটা ব্যবহার করতে চায় দল।