জোহানেসবার্গ: অভিনব সন্দেহ নেই৷ মহেন্দ্র সিং ধোনি মস্তিষ্ক প্রসূত এমন অভিনব শাস্তির ভয়েই টিম ইন্ডিয়ার অনুশীলন অথবা টিম ম্যিটিংয়ে দেরি করে আসত না কেউ৷

ধোনি এমনিতেই উলটো পথের যাত্রী৷ ফাটকা খেলায় তাঁর জুড়ি নেই৷ সবাই যথন উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সোজা পথে হাঁটেন, ধোনি ভাবেন নতুন কিছু৷ ধোনির তেমনই এক উদ্ভাবনী চিন্তাধারার কথা সামনে এল৷

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপের শুরু থেকেই পাওয়া যাবে রাবাদাদের, আত্মবিশ্বাসী কোচ গিবসন

টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন মেন্টাল কন্ডিশনাল কোচ প্যাডি আপটন নিজের বইয়ে ধোনির নতুন একটি দিকের হদিশ দিলেন৷ জানালেন, সতীর্থদের দেরিতে অনুশীলন বা টিম মিটিংয়ে আসা আটকাতে দলের মধ্যে একটি শাস্তিবিধান করেছিলেন ক্যাপ্টেন কুল৷

আপটন যখন টিম ইন্ডিয়ার কোচিং স্টাফ তখন ভারতীয় দলের টেস্ট ক্যাপ্টেন অনিল কুম্বলে৷ ওয়ান ডে ও টি-২০ ক্যাপ্টেন ধোনি৷ দলের সবাইকে শৃঙ্খলাপরায়ণ ও সময় সম্পর্কে সচেতন করার জন্য টিম ইন্ডিয়ায় শাস্তিবিধানের নিদান দেওয়া হয়৷ ক্রিকেটার ও কোচিং স্টাফের সবাই মিলে অধিনায়কের উপর দায়িত্ব চাপিয়ে দেয় কেউ দেরিতে প্র্যাকটিসে এলে তাঁর কী শাস্তি হবে তা নির্ধারণের৷

আরও পড়ুন: মুম্বই প্রিমিয়র লিগে উত্তেজক জয় পৃথ্বীদের

টেস্ট অধিনায়ক কুম্বলে ঠিক করেন যে, কেউ দেরি করলে তাঁর ১০ হাজার টাকা জরিমানা হবে৷ ওয়ান ডে ক্যাপ্টেন ধোনিও সেই প্রস্তাব যথাযথ মনে করেন৷ তবে সঙ্গে জুড়ে দেন আরও একটি শর্ত৷ ধোনি জানান কোনও ক্রিকেটার দেরি করলে তাঁর যতারীতি জরিমানা হবে৷ সঙ্গে দলের বাকি ক্রিকেটারদেরও ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা দিতে হবে৷ অর্থাৎ কেউ একজন দেরি করলে দলের প্রত্যেকের জরিমানা হবে৷

ধোনির এমন শাস্তির ভয়েই কোনও ক্রিকেটার অকারণে দেরিতে অনুশীলনে আসত না৷ আসলে সতীর্থরাই কাউকে দেরি করে আসতে দিত না৷ সবাই তৎপর থাতক বাকিদের সঠিক সময়ে প্র্যাকটিসে নিয়ে আসতে৷