মুম্বই: জাতীয় দল প্রত্যাবর্তনে সমালোচকদের মুখ বন্ধ করে দিয়েছেন৷ উইকেটের পিছনে গ্লাভস ও উইকেটের সামনে ব্যাট হাতে পারর্ফম করে আসন্ন বিশ্বকাপ দলে নিজের জায়গা পাকা করে নিয়েছেন৷ প্রাক্তন বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনিকে নিয়ে এমনই অভিমত জাতীয় নির্বাচক প্রধান এমএসকে প্রসাদ৷

৩০ মে থেকে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে বসছে দ্বাদশ বিশ্বকাপের আসর৷ ভারতের প্রথম ম্যাচ ৫ জুন টাইটানিকের শহর সাউদাম্পটনে৷ বিরাট কোহলিদের প্রথম প্রতিপক্ষ দক্ষিণ আফ্রিকা৷ বিশ্বকাপে বিরাটদের দল ঘোষণা এখনও হয়নি৷ তবে সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড সফরে ধোনির ফর্ম স্বস্তিতে রেখেছে নির্বাচকদের৷

কিন্তু ২০১৮ সালে ধোনির অফ-ফর্ম নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল বিশ্বকাপে ধোনি দলে থাকবেন কিনা! গত বছর ২০১৮-এ ২০টি ওয়ান ডে ম্যাচে মাত্র ২৭৫ রান এসেছিল মাহির ব্যাট থেকে৷ ফলে তাঁর পরিবর্ত হিসেবে দীনেশ কার্তিক ও ঋষভ পন্তকে ভাবাও হয়েছিল৷ কিন্তু ২০১৯-এর শুরুতেই চিত্র পালটে যায়৷ অস্ট্রেলিয়ার সফরে প্রায় আড়াই মাস পর ভারতীয় দলে ফিরে ব্যাট হাতে সমালোচকদের জবাব দেন ধোনি৷

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের সিরিজে হাফ-সেঞ্চুরির হ্যাটট্রিক করে ম্যাচ অফ দ্য সিরিজের পুরস্কার জিতে নেন ধোনি৷ মুলত তাঁর ব্যাটে ভর করে অস্ট্রেলিয়ায় প্রথমবার দ্বি-পাক্ষিক ওয়ান ডে সিরিজ জেতে ভারত৷ তার পর নিউজিল্যান্ডের মাটিতে পাঁচ ম্যাচের ওয়ান ডে সিরিজ ৪-১ জেতে টিম ইন্ডিয়া৷ কিউয়িদের বিরুদ্ধে সিরিজেও ব্যাট হাতে পারফর্ম করেন মাহি৷

ধোনি সম্পর্কে এমএসকে প্রসাদ বলেন, ‘শেষ দু’টি সিরিজে মাহি যেভাবে খেলেছে তা এটা পরিষ্কার বিশ্বকাপ দলে ওর গুরুত্ব অপরিসীম৷ এটা দেখে ভালো লাগছে, ও নির্ভিকভাবে শট খেলছে৷ ওকে ঠিক আগের মতোই ভয়ংকর ভাবে ব্যাট করতে দেখা যাচ্ছে৷ পাশাপাশি বিরাটের পরামর্শদাতা হিসেবেও দেখা যাবে মাহিকে৷’