রাঁচি: মহেন্দ্র সিং ধোনি৷ ভারতীয় ক্রিকেটের মহীরূহ! রাঁচির রাজপুত্রের হাত ধরে দু’বার বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়েছে ভারত৷ বিশ্বক্রিকেটের মানচিত্রে রাঁচিকে তুলে ধরেছেন মাহি৷ রবিবার রাঁচির রাজভবনে প্রাক্তন ভারত অধিনায়কের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে এমনই মন্তব্য করেন দেশের রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ৷

মাস দু’য়েক আগে ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের মাটিতে বিশ্বকাপে শেষবার ভারতীয় দলে দেখা গিয়েছে টিম ইন্ডিয়ার বিশ্বকাপ জয়ী অধিনায়ককে৷ বিশ্বকাপের পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ধোনির অবসর জল্পনা এখনও বিদ্যমান৷ কারণ বিশ্বকাপের পরই জাতীয় দল থেকে দু’মাসের ছুটি নিয়ে ভারতীয় সেনাবাহিনীর সঙ্গে সময় কাটিয়েছেন মাহি৷ দেশের ৭৩তম স্বাধীনতা দিবসের প্রাককালে উপত্যকায় সেনার পোশাকে দেশরক্ষায় নিজেকে ব্যস্ত রেখেছিলেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক৷

দু’মাসের ছুটি অতিবাহিত হয়ে গেলেও এখনও ভারতীয় দলে ফেরেননি মাহি৷ আরও কিছু দিনের ছুটি চেয়ে নভেম্বরে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে সিরিজ থেকেও সরে দাঁড়িয়েছেন ধোনি৷ ফলে ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর এবং ঘরের মাঠে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের পর বাংলাদেশের বিরুদ্ধেও পাওয়া যাবে না বিশ্বকাপ জয়ী ভারত অধিনায়কে৷ বাইশ গজ থেকে সাময়িক অবসর নিয়ে পরিবারের সঙ্গে চুটিয়ে সময় কাটাচ্ছেন মাহি৷

রবিবার রাঁচি ইউনিভার্সিটির ৩৩তম কনভকেশনের অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন রাষ্ট্রপতি কোবিন্দ৷ তারপরে রাজভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেন ধোনি৷ এ প্রসঙ্গে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘রবিবার রাজভবনে ধোনির সঙ্গে আমার সৌজন্য সাক্ষাত হয়েছে৷ খুব ভালো লেগেছে৷ এত জনপ্রিয় হওয়ার পরেও এত লো-প্রোফাইল ধরে রেখেছে ও৷ বিশ্ব মানচিত্রে ধোনি রাঁচিতে অন্য জায়গা করে দিয়েছে৷’ এছাড়াও ঝাড়খণ্ডের আরও দুই ক্রীড়াবিদ দীপিকা কুমারী ও জয়পাল সিং মুন্ডার প্রশংসা করেন রাষ্ট্রপতি৷