লেহ: প্রথমবার সেনা পোশাকে দেশের স্বাধীনতা দিবস পালন করলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি৷ নতুন কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল লাদাখে সেনা সতীর্থদের সঙ্গে বৃহস্পতিবার ৭৩তম স্বাধীনতা দিবসের বিশেষ মুহূর্ত শেয়ার করেন বিশ্বকাপ জয়ী ভারত অধিনায়ক৷

২০১১ বিশ্বকাপ জিতে ২৮ বছর পর ফের ভারতবাসীর স্বপ্ন সত্যি করেছিলেন ধোনি৷ সেই সঙ্গে ক্রিকেটবিশ্বে ভারতীয় পতাকা মান বাড়িয়েছিলেন রাঁচির রাজপুত্র৷ এবার দেশরক্ষায় নিজেকে নিয়োজিত করে জীবনের এক স্মরণীয় মুহূর্তের সাক্ষী থাকলেন মাহি৷ ১৫ অগস্ট লাদাখে ১০৬ নম্বর টেরিটোরিয়াল আর্মি ব্যাটেলিয়নের সঙ্গে স্বাধীনতা দিবস সেলিব্রেশন করেন বিশ্বকাপ জয়ী ভারত অধিনায়ক৷

৫ অগস্ট জম্মু-কাশ্মীর থেকে আর্টিকল ৩৭০ ও ৩৫-এ বিলোপ করে রাজ্যের ক্ষমতা খর্ব করে কেন্দ্র সরকার৷ এর ফলে জম্মু-কাশ্মীর ও লাদাখ দু’টি আলাদা কেন্দ্র শাসিত অঞ্চলে পরিণত হয়৷ সেই লাদাখে স্বাধীনতা দিবস সেলিব্রেশন করেন মাহি৷ বুধবারই লাদাখে পৌঁছেছিলেন ধোনি৷ সেখানে তাঁকে সেনার তরফে স্বাগত জানান হয়৷

পতাকা তুলে স্বাধীনতা দিবস সেলিব্রশনের আগে লাদাখের আর্মি হাসপাতালে যান ধোনি৷ সেখানে ভর্তি জওয়ান ও তাঁদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন তিনি৷ সুত্রের খবর এরপর সিয়াচেনে কর্তব্যরত ভারতীয় জওয়ানদের সঙ্গে দেখা করবেন মাহি৷ পাশাপাশি সিয়াচেনের ওয়ার মেমোরিয়ালে গিয়ে শহিদ জওয়ানদের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক৷

সদ্যসমাপ্ত ২০১৯ বিশ্বকাপের পর বাইশ গজ থেকে সাময়িক অবসর সেনাবাহিনীতে যোগ নেন ধোনি৷ দু’মাস ক্রিকেট থেকে বিশ্রাম নিয়ে দেশরক্ষায় নিজেকে নিয়োজিত করেন টিম ইন্ডিয়ার ৩৮ বছরের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান৷ ৩১ জুলাই শ্রীনগরে ১০৬ নম্বর টেরিটোরিয়াল আর্মি ব্যাটেলিয়নে দেন মাহি৷ যোগ দিয়েই সেনা পোশাকে ব্যাটে অটোগ্রাফ দিতে দেখা গিয়েছিল কর্নেল (সম্মানিক) ধোনিকে৷

২০১১ দেশকে বিশ্বকাপ জেতানোর পর ভারতীয় টেরিটোরিয়াল আর্মির তরফে ধোনিকে কর্নেল (সাম্মানিক) পদ প্রদান করা হয়। বছর চারেক পর ২০১৫ আগ্রায় সেনার এয়ারক্র্যাফটের প্রশিক্ষণে পাঁচটি প্যারাশুট জাম্প সম্পূর্ণ করেন মাহি। একই সঙ্গে একজন কোয়ালিফায়েড প্যারাট্রুপার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেন বিশ্বজয়ী অধিনায়ক।