নয়াদিল্লি: কথা রাখলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। প্রস্তাবিত সূচী অনুযায়ী ভারতীয় সেনার প্যারাশুট রেজিমেন্টের সঙ্গে মাসদুয়েকের প্রশিক্ষণ শুরু করে দিলেন বিশ্বজয়ী অধিনায়ক। সূত্রের খবর, বুধবারই ধোনি সেনার একটি ব্যাটেলিয়নে যোগদান করেছেন, যার হেডকোয়ার্টার অবস্থিত বেঙ্গালুরুতে।

সূত্র মারফৎ আইএএনএস-কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানানো হয়েছে, পরিকল্পনাটি দীর্ঘদিন ধরেই পাইপলাইনে ছিল। অবশেষে তা পূর্ণতা পেল। সূত্রের কথা অনুযায়ী, ‘ধোনি যেমন ভারতীয় ক্রিকেটে দীর্ঘদিন ধরে প্রভূত সেবা করে এসেছে ঠিক তেমনই সশস্ত্র সেনাকে নিয়ে তাঁর ভালোবাসার কথাও অজানা নয়। ক্রিকেটের কারণে তাঁর রেজিমেন্টের সঙ্গে প্রশিক্ষণ গ্রহণ করা কিংবা সময় কাটানোর সিদ্ধান্তটি দীর্ঘদিন ধরেই আটকে ছিল।’ সূত্রের আরও সংযোজন, ‘ধোনির এই সিদ্ধান্ত সশস্ত্র সেনাদের নিয়ে যুবসমাজে সচেতনতা আরও বৃদ্ধি করবে।’

বছর আটত্রিশের মাহি দেশের টেরিটোরিয়াল আর্মির প্যারাশুট রেজিমেন্টের সাম্মানিক লেফটেন্যান্ট কর্নেল পদে আসীন। ২০১১ ভারতীয় সেনার তরফ থেকে এই সম্মান প্রদান করা হয়েছিল। ধোনির পাশাপাশি অভিনব বিন্দ্রা ও দীপক রাওকেও সাম্মানিক এই পদে আসীন করেছিল সেনা। এরপর ২০১৫ আগ্রায় সেনার এয়ারক্র্যাফটের প্রশিক্ষণে পাঁচটি প্যারাশুট জাম্প সম্পূর্ণ করেন মাহি। একইসঙ্গে একজন কোয়ালিফায়েড প্যারাট্রুপার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেন বিশ্বজয়ী অধিনায়ক।

বিশ্বকাপের সেমিফাইনাল থেকে ভারত ছিটকে যাওয়ার পর মাহির অবসর জল্পনা ছিল চর্চার শিরোনামে। ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে আদৌ কী ভারতীয় দলের বিমানে উঠবেন মাহি নাকি খানিকটা বাধ্য হয়েই বানপ্রস্থে যাবেন তিনি। ঠিক এমন সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে দল নির্বাচনের ঠিক আগেরদিন বিসিসিআইকে ধোনি জানিয়ে দেন তাঁর সিদ্ধান্তের কথা। আগামী দু’মাস সেনার সঙ্গে সময় কাটাবেন বলে ক্যারিবিয়ান সফর থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন মাহি।

আগামী ৩ অগাস্ট থেকে ফ্লোরিডায় টি২০ সিরিজ দিয়ে ক্যারিবিয়ান সিরিজে অভিযান শুরু করছে ভারত।