দুবাই: মরু শহরে ফের ধাওয়ান ঝড়। কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে শতরান গড়ে আইপিএল ইতিহাসে অনন্য নজির গড়লেন ‘গব্বর’। আইপিএলের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে মঙ্গলবার টানা দু’টি ম্যাচে সেঞ্চুরির রেকর্ড গড়লেন দিল্লি ক্যাপিটালসের এই ওপেনিং ব্যাটসম্যান।

ত্রয়োদশ আইপিএলের দশম ম্যাচে এদিন পঞ্জাবের বিরুদ্ধে ৬১ বলে অপরাজিত ১০৬ রানের ইনিংস খেললেন ধাওয়ান। আগের ম্যাচে চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে ম্যাচ জেতানো ৫৮ বলে অপরাজিত ১০১ রানের ইনিংস এসেছিল বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যানের ব্যাট থেকে। সবমিলিয়ে আইপিএলের ইতিহাসে প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে টানা দু’ম্যাচে সেঞ্চুরি করে ইতিহাসে ধাওয়ান। গত ম্যাচেই আইপিএলে প্রথম শতরান এসেছিল ‘গব্বরে’র ব্যাটে।

ইতিহাস গড়ার দিনে এদিন আইপিএলে আরও একটি মাইলস্টোন স্পর্শ করলেন ফর্মের শিখরে থাকা ধাওয়ান। পঞ্চম আইপিএল ব্যাটসম্যান হিসেবে আইপিএলে এদিন ৫ হাজার রানেরও মাইলস্টোন ছুঁলেন তিনি। বিরাট কোহলি, সুরেশ রায়না, রোহিত শর্মা এবং ডেভিড ওয়ার্নারের পর ৫ হাজার রানের ক্লাবে নাম লেখালেন ধাওয়ান।

শুধু তাই নয়। আইপিএলের ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে টানা ৪ ম্যাচে অর্ধশতরানের নজিরও এল ধাওয়ানের ব্যাটে। বীরেন্দ্র সেহওয়াগ, জোস বাটলার, বিরাট কোহলি, ডেভিড ওয়ার্নার এবং কেন উইলিয়ামসনের ব্যাটে এই নজির এসেছিল। দুবাইয়ে এদিন মূলত ধাওয়ানের ব্যাটেই প্রথমে ব্যাট করে ১৬৪ রান তোলে দিল্লি ক্যাপিটালস।

ওপেন করতে নেমে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থেকে ‘ক্যারি দ্য ব্যাট’ করে টি-২০ ক্রিকেটে নজির গড়লেন ধাওয়ান৷কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের বোলারদের বিরুদ্ধে এদিন শুরু থেকই আক্রমণাত্মক ইনিংস খেলেন ধাওয়ান৷ হাফ-সেঞ্চুরি করেছিলেন মাত্র ২৮ বলে আটটি চার ও একটি ছক্কা মেরে৷ অন্য প্রান্তে যখন কোনও ব্যাটসম্যান বেশিক্ষণ ক্রিজে কাটাতে পারেননি, তখন তিনি স্বমহিমায় ব্যাট করে গেলেন গব্বর৷ ৫৭ বলে এক ডজন বাউন্ডারি ও ৩টি ওভার বাউন্ডারি মেরে সেঞ্চুরিতে পৌঁছন ধাওয়ান৷

টস জিতে এদিন প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন দিল্লি ক্যাপিটালসের অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ার৷ কিন্তু শুরুটা মোটেই ভালো হয়নি তাদের৷ এদিন বড় রান করতে পারলেন না অন্য ওপেনার পৃথ্বী শ৷ ১১ বলে মাত্র ৭ রান করে আউট হন পৃথ্বী৷ এক প্রান্তে একের পর এক উইকেট তুলে নিলেও কিন্তু ফর্মে থাকা ধাওয়ানকে ডাগ-আউটে ফেরত পাঠাতে পারেননি দিল্লি বোলাররা৷

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।