কলকাতা : পূর্ব ভারতের সবচেয়ে বড় রিটেল জুয়েলারি চেন সেনকো গোল্ড অ্যান্ড ডায়মন্ডস এক মেগা দীপাবলি অফার ঘোষণা করেছে, যার নাম ‘ধনতেরাস শগুন অফার’। জয়োৎসব উপলক্ষে এই অফারে ক্রেতারা সোনা আর হীরের গয়নার কেনায় বিপুল সুবিধা পাবেন।

এই মেগা উৎসব অফার ঘোষণা করে শ্রী শুভঙ্কর সেন, সিইও , সেনকো গোল্ড অ্যান্ড ডায়মন্ডস, বলেন, “ধনতেরাস আর দিওয়ালি হল আনন্দ করার সময় আর এই সময়টা গয়না কেনার পক্ষে শুভ। এই উৎসবের মেজাজটা মাথায় রেখে আমরা সেরা গয়না দিচ্ছি আকর্ষণীয় অফারে, যাতে ক্রেতার গয়না কিনতে গিয়ে এক অভিজ্ঞতা নজিরবিহীন হয়। এছাড়া আমরা ১৯৯৯/- টাকার বেশি মূল্যের হীরের গয়নায় সুদবিহীন ই এম আই এবং বিনামূল্যে বিমার সুবিধা দিচ্ছি। ক্রেতাদের কাছ থেকে সুদ নেওয়া হবে না, কোন প্রোসেসিং চার্জও নেওয়া হবে না।”

একগুচ্ছ অফার পাওয়া যাবে ১৪ই নভেম্বর পর্যন্ত হীরের গয়নার জন্য সুদবিহীন ই এম আই এবং বিনামূল্যে বিমা পাওয়া যাবে, প্রোসেসিং ফি থাকবে না। প্রতি ১০ গ্রাম সোনার গয়নায় ৩০০০ টাকা ছাড়। হীরের গয়নায় ২৫% পর্যন্ত ছাড়। সোনার গয়নার মজুরি তে ছাড় শুরু ৮% থেকে । প্ল্যাটিনামের গয়নার মজুরিতে ২০% ছাড়। সিলভার অ্যান্ড গসিপ কালেকশনে ১৫% ছাড়। আর বি আই এর নির্দেশ অনুযায়ী সমস্ত কাগজপত্র পূরণ করার পরেই ক্রেতাকে ই এম আই এর সুযোগ দেওয়া হবে।

সেনকো গোল্ড অ্যান্ড ডায়মন্ডসের ডিজাইন আর বৈচিত্র্যের উদ্দেশ্য হল সবরকমের ক্রেতাকে পছন্দসই সোনা, হীরে, প্ল্যাটিনাম, রূপো এবং ফ্যাশন জুয়েলারি কেনার সুযোগ দেওয়া। সেনকোতে আপনি ৫০০ টাকা থেকে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত মূল্যের গয়না এক ছাদের তলায় পাবেন। সেই গয়নার মধ্যে আছে রোজকার ব্যবহারের জন্য এবং কাজের জায়গায় পরবার মত এভারলাইট কালেকশন, আসন্ন বিয়ের মরসুমের কনেদের জন্য বিবাহ কালেকশন, ফ্যাশনদুরস্ত এবং স্টাইলিশ পুরুষদের জন্য অহম কালেকশন এবং পার্টিতে পরে যাওয়ার জন্য গসিপ সিলভার অ্যান্ড ফ্যাশন জুয়েলারি কালেকশন। ১৮ ক্যারাটের গয়নার সাবেকি ডিজাইন এই গয়নাগুলোর দাম সাধ্যের মধ্যে রাখে, আর মজুরি কম বা বাজেটের মধ্যে হওয়ায় অফার সমেত এই গয়নাগুলো আপনাকে আপনার টাকার উপযুক্ত মূল্য দেয়। এই অতিমারির মধ্যেও একমাত্র আমাদের কারিগররাই আজকের মহিলাদের জন্য চালু ফ্যাশনের হাতে তৈরি গয়না এবং আধুনিক ডিজাইনের গয়না তৈরি করে চলেছেন। অফারগুলো সারা দেশের ১০০-র বেশি সেনকো গোল্ড অ্যান্ড ডায়মন্ডসের স্টোরে এবং অনলাইনে পাওয়া যাবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I