স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: করোনা মোকাবিলায় প্রয়োজনীর সামগ্রী কেনার জন্যে সাংসদ তহবিল থেকে নিজের নির্বাচনী কেন্দ্রকে এক কোটি টাকা দিলেন দেব। শুটিং করতে গিয়ে পায়ে চোট পেয়েছেন। তাই অনেকদিন থেকেই গৃহবন্দি রয়েছেন অভিনেতা- সাংসদ দেব। করোনার জন্যও আপাতত সেল্ফ আইসলেশনে রয়েছেন তিনি। তবে, গৃহবন্দি থেকেও এই পরিস্থিতিতে ঘাটালের জন্য জন্য একজন সাংসদের দায়িত্বই পালন করলেন দেব।

ঘাটাল এলাকায় যত হাসপাতাল রয়েছে, সেখানকার স্বাস্থ্যকর্মীরা যাতে প্রত্যেকে যথাযথ মাস্ক, স্যানিটাইজার, গ্লাভস পান এবং করোনা চিকিৎসায় যাতে কোনওরকম খামতি না থাকে, সেই জন্যই নিজের সাংসদ তহবিল থেকে এই টাকা দিয়েছেন ঘাটালের সাংসদ। করোনা মোকাবিকায় প্রয়োজনীয় টেস্ট কিট এবং যাবতীয় সরঞ্জাম কেনার জন্যেও সাংসদের এই অনুদান থেকে টাকা ব্যায় করা হবে বলে জানা গিয়েছে।

দেবের এই উদ্যোগে স্বাভাবিকবশতই খুশি ঘাটালবাসী। করোনার তৃতীয় পর্যায় বা সামাজিক সংক্রমণ রুখতেই গোটা দেশে ১৪ এপ্রিল মধ্যরাত পর্যন্ত লকডাউন ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী। এই ২১ দিন নিজেকে ঘরবন্দি করে রাখার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। করোনার সঙ্গে যুদ্ধকে ‘মহাভারতের চেয়েও কঠিন যুদ্ধ’ বলে উল্লেখ করেছেন মোদী।করোনা মোকাবিলায় ১ লক্ষ ৭০ হাজার কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ।

পশ্চিমবঙ্গের জন্য দু’শো কোটি টাকার আর্থিক প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পরিস্থিতির মোকাবিলায় আরও টাকা প্রয়োজন বলে ত্রাণ তহবিল গঠন করেছে কেন্দ্র ও রাজ্য।ইতিমধ্যেই সেখানে একাধিক সাংসদ-বিধায়ক থেকে শুরু করে সমাজের বিভিন্ন অংশের মানুষ সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। অনেক জনপ্রতিনিধি আবার সরাসরি নিজের নির্বাচনী কেন্দ্রের হাসপাতাল, স্বাস্থ্য কেন্দ্রে টাকা দিচ্ছেন। যেমন দেব-নুসরতরা সরাসরি নিজের নির্বাচনী কেন্দ্রে টাকা দিয়েছেন।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ