নিউ ইয়র্ক: দীর্ঘদিনের বান্ধবীকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে যে সোশ্যাল মিডিয়ার এমন রোষের মুখে পড়তে হবে, তা বোধহয় স্বপ্নেও ভাবেননি ডেনিস গ্যালভিন৷ অথচ ঠিক তেমনটাই হয়েছে তাঁর সঙ্গে৷ নেট দুনিয়ায় তাঁর বিয়ের প্রস্তাবের ভিডিও ভাইরাল হতেই চলছে বিশ্বজুড়ে মুন্ডপাত৷

আসলে গ্যালভিন চেয়েছিলেন জীবনের অত্যন্ত রোমাঞ্চকর মুহূর্তটাকে চিরস্মরণীয় করে রাখতে৷ কথায় বলে, ‘এভরিথিং ইজ ফেয়ার ইন লভ অ্যান্ড ওয়ার’৷ প্রেম ও যুদ্ধে সবকিছু সঠিক, এই তত্ত্বটাই মাটি হয়ে দেখা দেয় তাঁর ক্ষেত্রে৷

আরও পড়ুন: পাকিস্তানের মাটিতে পা দিতে রাজি নন স্মিথ

আসলে গ্যালভিন যখন তাঁর বান্ধবী ক্যাটলিন কুরানকে বিয়ের প্রস্তাব দেন, তিনি তখন নিউইয়র্ক সিটি ম্যারাথনে দৌড়চ্ছিলেন৷ রেসের মাঝেই ক্যাটলিনের সামনে হাঁটু গেড়ে বসে আংটি তুলে ধরেন৷ আপ্লুত ক্যাটলিন আবেগ ধরে রাখতে না পেরে কেঁদে ফেলেন এবং সম্মতি দেন৷ গ্যালভিন আংটি পরিয়ে দেন ক্যাটলিনের আঙুলে এবং দু’জনে একে অপরকে জড়িয়ে ধরেন৷

গোটা ঘটনাটি দর্শকদের মনোরঞ্জন করার পক্ষে অদর্শ উপকরণ হয়ে দাঁড়ায়৷ সবাই ঘটনাটি উপভোগ করার পাশাপাশি দু’জনকে করতালিতে অভিবাদন জানায়৷ ছবিও ওঠে দেদার৷ পরে নিজেকে সামলে নিয়ে ক্যাটলিন পুনরায় দৌড় শুরু করেন৷

আরও পড়ুন: বিশ্বব়্যাংকিংয়ের শীর্ষে উঠলেন ভারতীয় তারকা

খেলাধুলোর মঞ্চে বিয়ের প্রস্তাব দেওয়ার ঘটনা এই প্রথম নয়৷ এর আগেও বহু এমন ঘটনা ঘটেছে৷ তবে এক্ষেত্রে সোশ্যাল মিডিয়ার সমর্থন পাননি গ্যালভিন৷ নায়ক হওয়ার চেষ্টায় কার্যত নেটিজেনদের কাছে ভিলেন হয়ে দাঁড়ান তিনি৷ ভিডিওটি ভাইরাল হওয়া মাত্র রেসের মাঝে বান্ধবীর সময় নষ্ট করার জন্য প্রবল সমালোচনার মুখে পড়তে হয় তাঁকে৷ গ্যলভিনের জন্য বিশেষ করে মহিলা মহলে ক্ষোভে পড়তে হয় পুরুষ সমাজকে৷ অনেকেরই বক্তব্য, পুরুষরা চিরকার এমনভাবেই পিছনে টেনে ধরে মহিলাদের৷ তাদের উৎসাহিত করার বদলে সাফল্যের পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায়৷

কেউকেউ সাফল্যের চেয়েও প্রিয়জন বেশি গুরুত্বপূর্ণ বলে গ্যালভিনের প্রতি সহানুভূতিশীল হলেও বেশিরভাগের মতামত, রেস শেষ হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে পারতেন তিনি৷ যদিও ক্যাটলিনকে কেউ কাঠগড়ায় তোলেনি এবং তাঁর প্রতিক্রিয়াকে স্বাভাবিক বলেই বর্ণনা করা হচ্ছে৷