ঢাকা: এডিস এজিপ্টি মশার হামলা। সেই হামলায় ডেঙ্গু জ্বরে কাবু বাংলাদেশ। আক্রান্ত রোগীদের জীবন সংকট হতে শুরু করেছে হাজারে হাজারে মানুষ এই জ্বরের কবলে পড়েছেন। দেশের ৬৪টি জেলার মধ্যে ৫১টিতে ছড়িয়েছে ডেঙ্গু প্রাদুর্ভাব। মহামারির আকার নিচ্ছে এই মশা বাহিত রোগ। হাজারে হাজারে আক্রান্ত। প্রতি মুহূর্তেই সংখ্যাটা ছাড়াচ্ছে দ্রুত। এই মুহূর্তে বাংলাদেশ হল ডেঙ্গু আক্রান্ত দেশ।

পরিস্থিতি আরও ঘোরতর হয়ে গেল। ডেঙ্গুতে আক্রান্ত বাংলাদেশের প্রায় পুরোটাই।

বিশেষজ্ঞদের আশঙ্কা এরকম চলতে থাকলে বাংলাদেশ থেকে প্রতিবেশী ভারতের সংলগ্ন রাজ্যগুলিতে ডেঙ্গু ছড়ানোর সম্ভাবনা প্রবল হয়ে উঠেছে। পশ্চিমবঙ্গের কলকাতা সংলগ্ন এলাকাগুলিতে এমনিতেই ডেঙ্গু ছড়ায়। ইতিমধ্যেই ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের সংখ্যা বাড়তে থাকায় হাসপাতালগুলিতে স্থানাভাব প্রকট। শুধু এডিস এজিপ্টি মশা নয়, এডিস এলবোপিকটাস মশাও ডেঙ্গু রোগের কারণ হতে পারে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

এদিকে ঢাকার সর্বত্র ছড়িয়েছে এই রোগ। শয়ে শয়ে মানুষ আক্রান্ত হতে শুরু করেছেন। ডেঙ্গু প্রতিরোধে সরকারের ভূমিকা নিয়ে ছড়াচ্ছে ক্ষোভ। প্রশাসনিক গাফিলতির অভিযোগ উঠতে শুরু করেছে। ক্ষমতায় থাকা দল আওয়ামী লীগের তরফে স্বেচ্ছাসেবক বাহিনি গঠন করে ঢাকার বিভিন্ন এলাকায় জমা জল ও আবর্জনা সরানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। সোশ্যাল সাইটে আবেদন জানানো হয়।

বিবিসি জানাচ্ছে, ডেঙ্গুতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা যে হারে বাড়ছে তাতে উদ্বেগের কারণ থাকছেই। শুধু বাংলাদেশ নয়, থাইল্যান্ড ও ইন্দোনেশিয়া জুড়েও এই রোগের কারণে শুরু হয়েছে আতঙ্ক। ইন্দোনেশিয়া সরকার শুরু করেছে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় মশা মারার কাজ।