মুম্বই: নির্বাচনী ফলপ্রকাশের পর থেকে বিজেপি ও শিবসেনার ক্ষমতা দখলের লড়াই থামার কোন লক্ষণ দেখা যাচ্ছে না৷ ক্ষমতা দখলের লড়াইতে ক্রমেই ‘দাঁত-নখ’ বের করছে শিবসেনা। অন্যদিকে সেনার দাবি মেনে কোনভাবেই ঝুঁকতে রাজি হয়নি বিজেপি৷ আর তাই নির্বাচনী ফলপ্রকাশের পরে কাটছে একটার পর একটা দিন, এখনও পর্যন্ত মহারাষ্ট্রে নতুন সরকার গড়তে পারেনি গেরুয়া শিবির৷ বিজেপির তরফ থেকে দেবেন্দ্র

ফড়নবীশকে মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে ঘোষণা করার পরেই নির্দল প্রার্থীদের সমর্থনে জোর পেয়েছিল শিবসেনা। সাংসদ সঞ্জয় রাউত জানিয়েছিলেন শিবসেনা চাইলেই মারাঠাভূমিতে সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করে সরকার গঠন করতে পারে।দলীয় মুখপত্রে জানানো হয়েছিল দরকার পরলে বালাসাহেব ঠাকরের দল সরকার গঠনের জন্য অন্য পন্থাও নিতে পারে। বিজেপির সিদ্ধান্ত নিয়ে সমালোচনা করা হয়েছিল।

মহারাষ্ট্রের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির টালমাটাল৷ অবস্থা নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহের সঙ্গে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবীশের বৈঠক হওয়া নিয়ে শিবসেনা সাংসদ সঞ্জয় রাউত কটাক্ষ করে জানিয়েছেন মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক পরিস্থিতি যথেষ্ট পরিষ্কার। দিল্লির দূষণ মহারাষ্ট্রে প্রবেশ করেনি। মুম্বইয়ে সাংবাদিক সম্মেলন থেকে রাউত জানিয়েছেন, রাজ্যের জন্য সকল সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করবেন শিবসেনা প্রধান উদ্ধব ঠাকরে।

নির্বাচনী ফলপ্রকাশের পর থেকেই ক্ষমতার আধা আধি বখরা নিয়ে শিবসেনা ও বিজেপির মধ্যে ক্রমেই লড়াই বেড়ে চলেছে। নির্বাচনের আগে বিজেপি ক্ষমতার ভাগ নিয়ে কথা বললেও নির্বাচনের পর থেকে এই দাবি মানতে রাজি হয়নি বিজেপি শিবির। একচুল সরতে রাজি হয়নি শিবসেনা। আড়াই বছরের মুখ্যমন্ত্রী পদ নিয়ে দুই দলের মধ্যে ক্রমেই তরজা বেড়েইছে। বিজেপি যদি শিবসেনা কে সমর্থন না করে তাহলে তারা ১৭০ বিধায়ক ও কংগ্রেস এবং এনসিপির সমর্থন নিয়ে মহারাষ্ট্রে সরকার গঠন করতে পারে বলে জানিয়েছিল। তারপরেই মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠক করার জন্য দিল্লিতে গিয়েছিলেন ফড়নবীশ।

এই বিষয় নিয়ে শরদ পাওয়ার ও কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধীর সঙ্গেও বৈঠক হয়েছে। এই মুহূর্তে মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক পরিস্থিতি যে বেশ জটিল তা মানছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। আর মহারাষ্ট্রে স্থায়ী সরকার গঠন করা হোক তা চাইছেন উদ্ধব ঠাকরে। আর শরদ পাওয়ারের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার প্রসঙ্গে শিব সেনার এই সাংসদ গুজব বলে উড়িয়ে দিয়েছেন। ফড়নবীশের উদ্ধব ঠাকরের সঙ্গে বৈঠক হওয়ার বিষয়ে জানিয়েছেন যতক্ষণ না বাস্তবে হচ্ছে বিশ্বাস করা ঠিক নয়।