নয়াদিল্লি: বিপদসীমা পার করতে চলেছে যমুনা। তাই তড়িঘড়ি জরুরি বৈঠকের ডাক দিলেন দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। সোমবার দিল্লির সচিবালয়ে ওই বৈঠক ডাকেন তিনি। দুপুর একটা থেকে বসে বৈঠক।

সোমবার দেখা যায়, দিল্লির আয়রন ব্রিজের উপর দিয়ে বইছে যমুনা। অতিক্রম করতে চলেছে বিপদসীমা। তাই পরিস্থিতি ঠেকাতে তড়িঘড়ি এদিন জরুরি বৈঠক ডাকেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন সকাল ৮ টা পর্যন্ত দেখা যায়, যমুনার জলস্তর বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২০৪.৫৬ মিটার। যমুনার জন্য জলের বিপদসীমা ২০৫.৩৩ মিটার। অর্থাৎ সকাল পর্যন্ত যমুনার যে জলস্তর ছিল তা বিপদসীমার খুব নিকটেই অবস্থান করছে। যমুনার জলের বিপদসীমা অতিক্রম করতে আর বাকি রয়েছে মাত্র ১০০ মিটার দুরত্ব।

এদিন এক টুইটে কেজরিওয়াল লিখেছেন, “পরিস্তিতি সামাল দেওয়ার আলোচনা নিয়ে আমি আজ সমস্ত দফতরের আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠকে বসছি।”

বন্যা পরিস্থিতির মোকাবিলায় দিল্লির সমস্ত এজেন্সিগুলিও বৈঠক ডেকেছে। শনিবার থেকে শুরু হয়ে রবিবার পর্যন্ত মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হয়েছে রাজধানী শহরে। দিল্লির যমুনা নগরে ইতিমধ্যেই এই সংক্রান্ত সতর্কতা জারি করেছে প্রশাসন।