নয়াদিল্লি : দিল্লি থেকে চণ্ডীগড় হয়ে অমৃতসর ৷ এবার যাওয়া যাবে মাত্র ২ ঘণ্টা ৩ মিনিটে ৷ নিয়ে যাবে বুলেট ট্রেন ৷ ট্রেনের গতিবেগ ঘণ্টায় ৩০০ কিলোমিটার ৷ ২ ঘণ্টায় ৪৫৮ কিলোমিটার দূরত্ব অতিক্রম করবে ট্রেনটি ৷ মাঝে দাঁড়াবে পানিপথ, আম্বালা, চণ্ডীগড় ও লুধিয়ানায় ৷

অমৃতসর শতাব্দী এক্সপ্রেস এই দূরত্ব অতিক্রম করতে নেয় ৬ ঘণ্টা ৷ একই দূরত্ব ২ ঘণ্টায় অতিক্রম করা গেলে যাত্রীদের সুবিধা হবে বলে জানিয়েছেন রেলের এক আধিকারিক ৷ ফ্রান্সের সিস্ত্রার হাত ধরেই এই কাজ সম্ভব হতে চলেছে ৷ ওই আধিকারিক জানিয়েছেন, ২০১৬ সালে রেলমন্ত্রকের কাছে বুলেট ট্রেনের প্রস্তাব রাখা হয়েছিল ৷ রেল সেই প্রস্তাব সমর্থন করে ৷

দিল্লি থেকে চণ্ডীগড়ের দূরত্ব ২৫৮ কিলোমিটার ৷ এই দূরত্ব বুলেট ট্রেন অতিক্রম করবে মাত্র ১ ঘণ্টায় ৷ ২০১৫ সালে ৪.৫ কিলোমিটারের টিকিটের দাম অনুসারে এই ট্রেনের টিকিটের দামও নির্ধারিত হবে ৷ মানে, দিল্লি থেকে অমৃতসর যেতে গেলে প্রতি টিকিটের জন্য খরচ হবে ২০৬১ টাকা (৪.৫*৪৫৮) ৷ দিল্লি থেকে চণ্ডীগড় যেতে লাগবে ১১৬১ টাকা ৷ দিল্লি-অমৃতসর শতাব্দী এক্সপ্রেসের ভাড়া ৮৯০ টাকা ৷ দিল্লি-চণ্ডীগড়ের ভাড়া ৬৫০ টাকা ৷ দিল্লি-অমৃতসর বিমান ভাড়া প্রায় ২ হাজার টাকা ৷ এক্ষেত্রে সময় লাগে ১ ঘণ্টা ৷ দিল্লি-চণ্ডীগড় বিমানের ভাড়াও একই, ২ হাজার টাকা ৷

২০১৫ সালের প্রাইস লেভেলে প্রজেক্টটি তৈরি করতে খরচ পড়ে ৬১ হাজার ৪১২ কোটি টাকা ৷ প্রজেক্টটি শেষ হতে ৬ থেকে ৮ বছর সময় লাগার কথা ছিল ৷ এখন বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, বুলেট ট্রেনটি চালু হতে সময় লাগবে আরও কয়েক বছর ৷ ২০১৫ সাল থেকে যাত্রীরা বুলেট ট্রেনে যাত্রা করতে পারবেন ৷

দ্রুত গতি সম্পন্ন রেল করিডোরের জন্য রেলমন্ত্রক হাই স্পিড রেল কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া (HSRC) তৈরি করেছে ৷ ভারতের সর্বপ্রথম বুলেট ট্রেন হতে চলেছে মুম্বই-আহমেদাবাদ বুলেট ট্রেন ৷ এটি জাতীয় HSRC-র আওতাভুক্ত ৷ এছাড়া দিল্লি-মুম্বই, মুম্বই-চেন্নাই, দিল্লি-কলকাতা, দিল্লি-নাগপুর-চেন্নাই, মুম্বই-নাগপুর, চেন্নাই-বেঙ্গালুরু-মাইশোর রেলপথগুলিও HSRC-র আওতাভুক্ত হবে ৷