নয়াদিল্লি: ২১টি সংস্থার দুধের নমুনা পরীক্ষার পর প্রশ্ন উঠল সেগুলির গুনগত মান নিয়ে। এগুলি নিম্নমানের বলে জানিয়েছে দিল্লি সরকার। এর মধ্যে রয়েছে আমুল ও মাদার ডেয়ারির মত সংস্থাও। এমনটাই জানিয়েছেন দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন।

তিনি বলেন, এই সব দুধ খাওয়া নিরাপদ নয়, এমনটা বলা হচ্ছে না। তবে এগুলির মধ্যে যেসব উপকরন থাকা উচিৎ, তা নেই। অর্থাৎ দুধে যেখানে ৫ শতাংশ ফ্যাত কম্পোনেন্ট ধাকার কথা, সেখানে রয়েছে মাত্র ৩ শতাংশ।

শুধুমাত্র দুধ নয়, পনীরও পরীক্ষা করে দেখা হবে বলে জানা গিয়েছে। ১৩ থেকে ২৮ এপ্রিলের মধ্যে গোটা দিল্লি জুড়ে ১৭৭টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে ছিল ব্র্যান্ডেড এবং নন-ব্র্যান্ডেড।

যার মধ্যে ১৬৫টি নমুনার ফল ইতিমধ্যে প্রকাশ্যে এসেছে। ২১টি নমুনায় ভেজাল রয়েছে বলে স্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে রিপোর্টে। দিল্লি সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, বিষয়টি নিয়ে আদালতের দ্বারস্থ হবে তারা। সংস্থাগুলিকে এজন্য ৫,০০০ টাকা থেকে ৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত জরিমানা করা হতে পারে।