নয়াদিল্লি- সারা দেশ জুড়ে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতায় তীব্র প্রতিবাদ চলছে। রাজধানী দিল্লি-সহ কলকাতা, বেঙ্গালুরু, মুম্বই, চেন্নাই সর্বত্রই এনআরসি ও সিএএ-র বিরুদ্ধে পথে নেমেছে মানুষ। বেঙ্গালুরুতে প্রতিবাদ মিছিল থেকেই পুলিশ আটক করেছে ইতিহাসবিদ রামচন্দ্র গুহকে। এই ঘটনারও নিন্দা চলছে বিভিন্ন মহলে।

একদিকে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের বিরোধিতা আর অন্যদিকে জামিয়া মিলিয়া ও আলিগড় বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়াদের উপরে পুলিশি অত্যচারের বিরুদ্ধে রাস্তায় নেমেছে অসংখ্য পড়ুয়া, বুদ্ধিজীবী ও সাধারণ মানুষ। তাঁদের একটাই দাবি এদেশে কোনও ভাবেই সিএএ চলবে না। কিন্তু এই প্রতিবাদী মিছিলের জেরেই সারা রাস্তাঘাটে যানজট তৈরি হয়েছে।

জানা যাচ্ছে, দেশের যে ১০টি শহরে কোনও অনুমতি ছাড়াই বিভিন্ন সংগঠন মিছিল করছে। ইতিমধ্যেই দিল্লির বেশ কিছু এলাকায় বন্ধ হয়েছে ইন্টারনেট পরিষেবা। প্রতিবাদীদের দাবি, পূর্বপরিকল্পিত এই মিছিলে ব্যাঘাত তৈরি করতেই ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করা হয়েছে। এয়ারটেলের পক্ষ থেকে টুইট করে বলা হয়েছে কলিং ও এসএমএস পরিষেবাও বন্ধ রাখা হয়েছে।

রাজধানীর রাজপথে সকাল থেকেই প্রতিবাদ মিছিল শুরু হওয়ায় রাস্তা জুড়ে জ্যাম শুরু হয়েছে। ফলে অফিসযাত্রীরা বিপাকে পড়েছেন যাতায়াতের পথে। দিল্লি গুরুগ্রাম সীমান্তে এই প্রতিবাদের জেরে অশান্তি সৃষ্টি হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। ফলে লাল কেল্লা এলাকায় জারি হয়েছে ১৪৪ ধারা।

শুধু রাস্তায় যাতায়াতই নয়। মেট্রো চলাচলও ব্যাহত হয়েছে রাজধানীতে। দিল্লি মেট্রো টুইট করে জানিয়েছে, ১৮টি স্টেশনের এন্ট্রি ও এক্সিট গেট বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে লাল কেল্লা, জামা মসজিদ, চাঁদনী চক, বিশ্ববিদ্যালয়, জামিয়া মিলিয়া ইসলামিয়া, জশোলা বিহার, শাহিন বাগ ও মুনিরকা।