নয়াদিল্লি: লোকসভা ভোটের সময় বিপাকে অরবিন্দ কেজরিওয়াল৷ দিল্লির মুখ্যমন্ত্রীর নামে জারি হয়েছে গ্রেফতারি পরোয়ানা৷ মঙ্গলবার দিল্লির একটি আদালত অরবিন্দ কেজরিওয়ালের নামে জামিন অযোগ্য ধারায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে৷ কেজরিওয়াল ছাড়াও দিল্লির উপমুখ্যমন্ত্রী মণীশ শিশোদিয়া ও স্বরাজ ইন্ডিয়ার সভাপতি যোগেন্দ্র যাদবের নামে এই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে৷

২০১৩ সালে পুরানো একটি মামলার সূত্র ধরে দিল্লি কোর্টের এই নির্দেশ৷ সুরেন্দ্র কুমার শর্মা নামে এক আইনজীবীর দায়ের করা মামলার শুনানিতে গরহাজির ছিলেন সকলে৷ তার পরিপ্রেক্ষিতে ক্ষুব্ধ দিল্লি কোর্ট সকলের নামে গ্রেফতারি পরোয়ানার নির্দেশ দেয়৷ বুধবার ফের এই মামলার শুনানি আছে৷

মামলাকারী সুরেন্দ্র কুমার শর্মা জানান, তাঁর কাজে কেজরিওয়াল সন্তোষ প্রকাশ করে তাঁকে দিল্লি বিধানসভা ভোটে টিকিট দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন৷ কেজরিওয়ালের মতো মণীশ শিশোদিয়া ও যোগেন্দ্র যাদবও তাঁকে ভোটে প্রার্থী করার আশ্বাস দেন৷ তাদের আশ্বাস পেয়ে সুরেন্দ্র আবেদন পত্র পূরণ করেন৷ পরে অবশ্য আপ থেকে টিকিট দিতে অস্বীকার করা হয়৷ এই নিয়ে বিবাদের সূত্রপাত৷

অপরদিকে শিবসেনা প্রধান উদ্ভব ঠাকরের নামে জারি হয় গ্রেফতারি পরোয়ানা৷ যেকোন সময় গ্রেফতার হয়ে যেতে পারেন তিনি৷ উদ্ভব ঠাকরে ছাড়া দলের আরও এক নেতা সঞ্জয় রাউত ও কার্টুনিস্ট শ্রীনিবাস প্রভুদেশাইয়ের নামেও গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছে৷ মঙ্গলবার মহারাষ্ট্রের একটি আদালতের বিচারপতি এই ওয়ারেন্ট ইস্যু করেন৷ তিন বছর পুরোন এক ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এই ওয়ারেন্ট৷