বিশাখাপত্তনম: দীর্ঘ সাত বছর পর আইপিএলের আইপিএলের প্লে-অফে দিল্লি ক্যাপিটালস৷ তুলনায় অনেক ধারাবাহিক সানরাইজার্স হায়দরাবাদ৷ অরেঞ্জ আর্মি গত বছরের রানার্স হলেও চলতি মরশুমে দিল্লির সামগ্রিক পারফরম্যান্স তুলনায় ভালো৷ লিগ পর্বের খেলা শেষে দু’দলের মধ্যে ৬ পয়েন্টের বড়সড় ফারাক ছিল৷ তবে প্লে-অফে এক নতুন লড়াই৷ এলিমিনেটর যে দল হারবে, তাদের আইপিএল অভিযান শেষ এখানেই৷

ডেভিড ওয়ার্নার ও জনি বেয়ারস্টো দেশে ফিরে যাওয়ায় হায়দরাবাদের শক্তি কমেছে সন্দেহ নেই৷ দিল্লিও সেখানে দলে পাচ্ছে না দলের সেরা বোলার কাগিসো রাবাদাকে৷ এই অবস্থায় ভাইজ্যাগের এলিমিনেটরে দিল্লিক ব্যাটিং বনাম হায়দরাবাদের বোলিংয়ের লড়াই দেখার অপেক্ষায় রয়েছে আইপিএল৷ যদিও এই ম্যাচে অনুপস্থিত টুর্নামেন্টের অপেঞ্জ ক্যাপের মালিক ওয়ার্নার এবং পার্পল ক্যাপ দখলে রাখা রাবাদা৷

আরও পড়ুন: সহজ ম্যাচ কঠিন করে জয় মিতালিদের

টুর্নামেন্টের প্রথম নক-আউটে টস ভাগ্য সঙ্গ দেয় দিল্লি অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ারের৷ টুর্নামেন্টের প্রবণতা বজায় রেখে দিল্লি প্রথমে ব্যাটিং করতে ডাকে সানরাইজার্সকে৷ যদিও তুলনায় স্লো পিচ এবং রাতের দিকে শিশির সমস্যার কথাও মাথায় ছিল শ্রেয়সের৷ টসে জিতে বোলিং নেওয়ার পিছনে কারণ হিসাবে দিল্লি অধিনায়ক স্পষ্ট উল্লেখ করেছেন এই বিষয়ের কথা৷

দু’দলই এই ম্যাচের প্রথম একাদশে একটি করে পরিবর্তন ঘটিয়েছে৷ দিল্লি কমিন ইনগ্রামের জায়গায় মাঠে নামার সুযোগ করে দিয়েছে কলিন মুনরোকে৷ হায়দরাবাদ ইউসুফ পাঠানকে বসিয়ে মাঠে নামানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে দীপক হুডাকে৷

আরও পড়ুন: চোটে কাবু রিচার্ডসনের বদলি রিচার্ডসনকেই বেছে নিল অস্ট্রেলিয়া

দিল্লি দল: পৃথ্বী শ, শিখল ধাওয়ান, শ্রেয়স আইয়ার (অধিনায়ক), ঋষভ পন্ত (উইকেটকিপার), কলিন মুনরো, শেরফান রাদারফোর্ড, অক্ষর প্যাটেল, কীমো পল, অমিত মিশ্র, ট্রেন্ট বোল্ট ও ইসান্ত শর্মা৷

হায়দরাবাদ দল: ঋদ্ধিমান সাহা (উইকেটকিপার), মার্টিন গাপ্তিল, মণীশ পান্ডে, কেন উইলিয়ামসন (অধিনায়ক), বিজয় শঙ্কর, দীপক হুডা, মহম্মদ নবি, রশিদ খান, ভুবনেশ্বর কুমার, খলিল আহামেদ ও বাসিল থাম্পি৷