নয়াদিল্লি: কাপ্তান বা ক্রিকেটার হিসেবে আইপিএলের খেতাব জয়ের স্বাদ পাওয়া হয়নি৷ এবার মেন্টরের ভূমিকায় নেমে সফল সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়৷ তাঁর হাত ধরেই আইপিএল মসনদের শীর্ষে দিল্লি ক্যাপিটালস৷ ১৪ পয়েন্ট নিয়ে লিগের মগডালে এখন শ্রেয়স অ্যান্ড কোম্পানি৷

ছন্দ ধরে রাখতে পারলে প্রথমবারের জন্য চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াইয়ে শেষদিন পর্যন্ত থাকতে পারে ক্যাপিটালস৷ শেষবার ২০১২ সালে শীর্ষস্থানে থেকে গ্রুপ পর্ব শেষ করেছিল দিল্লি৷ তার আগে ২০০৯ সালেও গ্রুপ পর্বে শীর্ষস্থানে থেকে নকআউট খেলেছিল রাজধানীর ফ্র্যাঞ্চাইজি৷

২০১৮ সালটা অবশ্য একেবারে খারাপ গিয়েছে দিল্লির৷ গ্রুপ পর্বে ৮ নম্বরে শেষ করেছিল তারা৷ হার থেকে শিক্ষা নিয়ে এবার একেবারে নতুন মোড়কে রাজধানীর ফ্রাঞ্চাইজি৷ দলের নাম বদল থেকে দলের খোলনচেটাই পাল্টে ফেলেছে দিল্লি৷

দিল্লির দুর্বার গতিতে ধওয়ান ফ্যাক্টর-
প্রথমেই সানরাইজার্স হায়দরাবাদ থেকে ধাওয়ানকে দলে ফিরিয়ে নেয় ক্যাপিটালস৷ ওপেনিংয়ে এই শিখরই এখন দলের প্রধান ব্যাটিং স্তম্ভ৷ ১১ ম্যাচে শিখরের সংগ্রহে ৪০১ রান৷ সর্বোচ্চ নাইটদের বিরুদ্ধে অপরাজিত ৯৭রান৷

তরুণদের উপর আস্থা-
দিল্লিতে সৌরভ জমানায় তরুণরাই এখন দলের তুরুপের তাস৷ ওপেনিংয়ে পৃথ্বী শ থেকে মিডল অর্ডারে ঋষভ পন্ত, শ্রেয়সরাই এখন দলের মুখ৷ উনিশের আইপিএলে ওপেনিংয়ে ভরসা দিচ্ছেন পৃথ্বী৷ অন্যদিকে মিডল অর্ডারে বিস্ফোরক পন্ত! রাজস্থানের বিরুদ্ধে শেষ ম্যাচে ৩৬ বলে ৭৮ রানের ইনিংস খেলছেন পন্ত৷ ইনিংস সাাজানো ৬টি চার ও ৪টি ছয় দিয়ে৷ ১১ ম্যাচে পন্তের সংগ্রহ ৩৩৬ রান৷

ডাগআউটে সৌরভ ফ্যাক্টর-
সোমবার ম্যাচ জয়ের পর পন্তকে কোলে তুলে নেওয়া থেকে ইডেনে নাইটদের বিরুদ্ধে ম্যাচ জিতে আকাশের দিকে হাত তুলে থাম্পস আপ! দিল্লি ডাগআউটে সৌরভের এই কোলাজগুলোই বলে দিচ্ছে, গোটা টুর্নামেন্ট জুড়েই দলকে তাতাচ্ছে ডাগআউটে সৌরভ ফ্যাক্টর৷

রাজস্থানের বিরুদ্ধে সোমবার ম্যাচ জিতে পন্ত নিজেও বলেছেন, ‘ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়ার পর সৌরভ স্যার জড়িয়ে ধরে অভিনন্দন জানান৷ নিজেকে সত্যিই তখন খুব স্পেশাল বলে মনে হচ্ছিল৷ সৌরভ স্যারের অভিনন্দন জানানোটা অবশ্যই বড় পাওনা ও মোটিভেশন৷’

আইপিএলে তাঁরে মেন্টরশিপে দিল্লি চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াইয়ে কোথায় শেষ করে উত্তরের অপেক্ষায় ক্রিকেট দুনিয়া৷