নয়াদিল্লি:দিল্লিবাসীর জন্য আসতে চলেছে এক নতুন চমক। দিল্লির ইন্দিরা গান্ধী বিমানবন্দর দেশের ব্যস্ত বিমানবন্দর গুলির মধ্যে অন্যতম। আর এবারে এই বিমানবন্দরে দুই টার্মিনালের মধ্যে আরও দ্রুত যাতায়াতের জন্য এয়ারট্রেন চালানো হতে পারে বলে জানা গিয়েছে।

দিল্লি বিমানবন্দরে এই মুহূর্তে সম্প্রসারণের কাজ চলছে। যা শেষ হয়ে যাবে ২০২২ সালের জুনের মধ্যে। তারপরেই এই ট্রেন চালু হতে পারে বলে জানা গিয়েছে। বিমানবন্দরের এক এবং তিন নম্বর টার্মিনালের মধ্যে যোগাযোগ বাড়ানোর জন্য এই নয়া পদক্ষেপ বলে জানা গিয়েছে।

এই মুহূর্তে এই বিমানবন্দরে বাসের ব্যবস্থা রয়েছে। বাসে করেই যাত্রীরা টার্মিনালে যাতায়াত করেন। কিন্তু এই বিমানবন্দরে ক্রমেই যাত্রী সংখ্যা বেড়ে চলছে যার ফলে বাসে করে যাতায়াতের ক্ষেত্রে যথেষ্ট সমস্যা হচ্ছে বলেও জানা গিয়েছে।

সেই কারণে এই এয়ার ট্রেনের ভাবনা বলেও জানা গিয়েছে। এই ট্রেন চালু হলে অনেক যাত্রী খুব কম সময়ে এক টার্মিনাল থেকে অন্য টার্মিনালে যেতে পারবেন। এই প্রকল্পের জন্য খরচ হতে পারে প্রায় ২০০০-২৫০০ কোটি টাকা।

ইন্দিরা গান্ধী বিমানবন্দরের এক এবং তিন নম্বর টার্মিনালের বাইরে রয়েছে মেট্রো স্টেশন। আর যে কারণে অন্যান্য টার্মিনালের থেকে এই দুই টার্মিনাল বেশী যাত্রীরা ব্যবহার করেন। এই নতুন সুবিধা আনা হলে যাত্রীদের সুবিধা হবে মনে করছেন অনেকে।

যাত্রীরা এই বিমানবন্দর বিদেশের যাওয়ার জন্য ব্যবহার করে থাকেন এছাড়াও অন্তদেশীয় বিমানের জন্য এই বিমানবন্দরকে অনেক যাত্রীরা ব্যবহার করে থাকেন। যে কারণে প্রায় প্রতিদিন প্রচুর যাত্রীরা দিল্লির এই বিমানবন্দরে আসেন। এই প্রকল্প চালু হলে জানা গিয়েছে আরও বেশী সংখ্যক মানুষজন এই বিমানবন্দরকে ব্যবহার করতে পারবেন।

সরকারী সুত্র মারফত জানা গিয়েছে প্রথম এই এয়ার ট্রেনের প্রস্তাব আজ থেকে তিন বছর আগেই করা হয়েছিল কিন্তু প্রয়োজনীয় টাকা পয়সা না থাকার কারণে তা বাস্তবায়িত করা যায় নি। এবারে এই প্রকল্প বাস্তব করার চেষ্টা করা হচ্ছে।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা