নয়াদিল্লি: কিছুদিন আগে সেনাপ্রধান জেনারেল রাওয়াত বলেছিলেন, ইন্টারনেট জগতে ভারত-বিরোধী শক্তিকে ঠেকাতে হলে প্রতিরক্ষা বাহিনীকেও উপযুক্ত শক্তি অর্জন করতে হবে৷ প্রায় একই কথা বলেছেন ভারতের বায়ূসেনাপ্রধান এয়ার চিফ মার্শাল ধানোয়া৷ সেকথা মাথায় রেখেই তথ্যপ্রযুক্তিকে প্রতিরক্ষায় আরও বেশি করে কাজে লাগাতে পদক্ষেপ নিল ভারত সরকার৷

তথ্যপ্রযুক্তির উন্নতি ঘটাতে ভারত যে উদ্যোগ নিতে চলেছে সেখানে অন্তত ২৫ হাজার কোটি টাকা প্রয়োজন৷ কিন্তু তার আগে ভারতের প্রতিরক্ষা বাহিনীকে সামরিক উপকরণ বিধিতে (ডিফেন্স প্রোকিওরমেন্ট ম্যানুয়াল বা ডিপিএম) কিছু পরিবর্তন আনতে হবে৷ আপাতত সেই কাজটিতেই সামরিক কর্তৃপক্ষ হাত দিয়েছেন৷ এই মুহূর্তে তথ্যপ্রযুক্তির উন্নয়নের লক্ষ্যে দরকার ৪ থেকে ৫ হাজার কোটি টাকা৷ নির্মলা সীতারমণের প্রতিরক্ষা মন্ত্রক ডিপিএমের জন্য তিন বাহিনীরই সহায়তা চেয়েছে৷

ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে বিভিন্ন প্রযুক্তি কোম্পানি৷ তারাও চাইছে, ভারত যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর স্থলবাহিনী, বায়ূসেনা এবং নৌবাহিনী গড়ে তুলুক৷ এর মধ্যেই ন্যাসকমের মতো আইটি কোম্পানির সঙ্গে ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের এ ব্যাপারে কথাবার্তা হয়েছে৷ যদিও এত বিপুল পরিমাণ অর্থ কোথা থেকে আসবে সেকথা সাংবাদিকরা জানতে চাইলে কোনও সদুত্তর মেলেনি৷ শুধু এটুকুই জানা গিয়েছে, ভারতের সেনাবাহিনীতে তথ্যপ্রযুক্তিতে আমেরিকার মতো দেশের সমগোত্রীয় করতে আরও বছর দশেক লাগবে৷