মুম্বই: ছপাক ছবি নিয়ে একাধিকবার ট্রোলিং এর শিকার হয়েছেন অভিনেত্রী দীপিকা পাডুকোন ‌। ছবির বিষয়ে ভালো হওয়া সত্ত্বেও সে ভাবে বক্স অফিসে কাজ করেনি দীপিকার ছপাক। এমনকি বিভিন্ন ক্ষেত্রে ছবি রেটিং কমিয়ে দেওয়া হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয় ঐশী ঘোষের সঙ্গে দীপিকার দেখা করতে যাওয়ার ফলে বক্সঅফিসে পিছিয়ে পড়েছে ছপাক। কিন্তু খোদ দীপিকা এই বিষয়টিকে সেভাবে গুরুত্ব দিচ্ছেন না।

ছাপাক ছবিতে একটি ডায়লগ রয়েছে, “ওরা আমার চেহারা বদলেছে, মন নয়।” জেএনইউ তে ঐশীর সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার প্রসঙ্গে অভিনেত্রী একই ধাঁচে বলছেন, “ওরা আমার ছবির রেটিং বদলে দিয়েছে। আমার মন নয়। “

দীপিকার এই মন্তব্য থেকে পরিষ্কার, গেরুয়া বাহিনীকেই তিনি কটাক্ষ করেছেন। জেএনইউ প্রেসিডেন্ট ঐশী ঘোষ এর সঙ্গে দেখা করতে যাওয়ার পরে গেরুয়া বাহিনী ঘোষণা করেছিল দীপিকার ছাপাক বয়কট করতে হবে। আর তারপর থেকেই অভিনেত্রীর ছবি নিয়ে নানা রকমের ট্রল ঘুরে বেরিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। বক্সঅফিসেও ছবি সেভাবে চলেনি কনটেন্ট ভালো থাকা সত্বেও। উল্টো দিকে বক্স অফিসে খুবই ভালো ব্যবসা করেছে অজয় দেবগন অভিনীত তানাজি।

জহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয় গিয়ে কোনও মন্তব্য করেননি দীপিকা। কিন্তু পরে তিনি এক সংবাদমাধ্যমের কাছে বলেছিলেন পদ্মাবত ছবির শুটিংয়ের সময় তারও একই রকমের অভিজ্ঞতা হয়েছিল। দীপিকার এমন মন্তব্যে ক্ষেপে যায় গেরুয়া শিবিরের সদস্যরা। আর তাই অভিনেত্রীর ছবির উপরে ফতোয়া জারি করেছিল গেরুয়া বাহিনী। এমনকি আইএমডিবি প্লাটফর্মে অস্বাভাবিক ভাবে ছবির রেটিং কমতে থাকে। যার কারণ স্বরূপ গেরুয়া বাহিনী ফতোয়া কে দায়ী করছে বিভিন্ন মহল।

প্রসঙ্গত আর কিছুদিনের মধ্যেই মুক্তি পাবে কপিল দেবের বায়োপিক ‘৮৩’। কপিল দেবের ভূমিকায় দেখা যাবে রণবীর সিংকে। কপিল দেবের স্ত্রীর ভূমিকায় অর্থাৎ রণবীরের বিপরীতে দেখা যাবে দীপিকা পাডুকোনকেই। বিয়ের পর এই প্রথম কোন ছবিতে একসঙ্গে জুটি বাঁধলেন রণবীর-দীপিকা। তাই ভক্তদের কৌতুহল তুঙ্গে। বিয়ের পরও এই জুটির রসায়ন আগের মতই আছে কিনা তা দেখতে অপেক্ষা করছেন দর্শকরা।