ফেলে দেন তো অনেক কিছুই৷ কিন্তু জানেন কি এই ধরমের ফেলে দেওয়া জিনিস দিয়ে কত সুন্দর ভাবে ঘর সাজিয়ে তোলা যায়? এতে নতুন কিচু কিনে টাকা নষ্টের দরকার পড়ে না, আবার পুরোনো জিনিস রিসাইক্লিংও হয়ে যায়৷ সামান্য ঠিকঠাক করে নিলেই সেই বাতিল জিনিষপত্র দিয়ে দিব্যি নানা কাজ করা যায়৷

পুরনো কাপড়

পুরোন কাপড় সবার বাড়িতেই মেলে৷ জানেন কি এই ফেলে দেওয়া কাপড় দিয়ে দুর্দান্ত কাজের জিনিস বানানো যায়? ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে যাওয়া কাপড়গুলি বস্তাবন্দী করে ফেলে দেয়ার আগে একটু ভাবুন। কয়দিন বাদে ঘর ঝাড়ামোছা করার কাপড়ের খোঁজ পড়লে তখন কাজে লাগতো না এসব? নষ্ট কাপড়ের ভালো যতোটুক অংশই পাবেন, কেটে রেখে দিন। ঘরের কোণে ছোট্ট এক টুকরো ফ্লোরম্যাটও বানিয়ে রেখে দিতে পারেন এমন কাপড় থেকে।

কাগজ

মাসের শেষে ডাঁই হয়ে থাকা খবরের কাগজ আমরা সবাই বিক্রি করে দি৷ কিন্তু কিছু কাগজ জমিয়ে রাখুন ঘরে৷ পুরনো খাতাপত্রেরও কিছু কিছু রেখে দিন এমন। ভেজা কাগজে আয়না ভালো পরিষ্কার করা যায়, তখন কাজে লাগবে খবরের কাগজ। বানিয়ে নিতে পারেন ঠোঙা৷ প্রয়োজনের সময় খুব কাজে দেবে।

কৌটো

কসমেটিকস ব্যবহার করা হয়ে গেলে সেই কৌটো ফেলেই দিয়ে থাকি আমরা৷ তবে এবার কয়েকটা জমিয়ে রাখুন ঘরে৷ ক্রিমের ডিব্বাটা দেখবেন কীভাবে কাজে লাগে৷ রাখতে পারেন সেফটিপিন, দুল, ক্লিপের মতো ছোট ছোট জিনিস৷ ছোট্ট লোশনের বোতলে ভ্রমণে যাওয়ার সময় বড় বোতল থেকে অল্প লোশন, শ্যাম্পু এসব ঢেলে নিতে পারেন। জিনিষপত্রের বোঝা তাতে কিছুটা তো কমবেই। প্রিয় মগের হাতলটা ভেঙ্গে গেছে হঠাৎ। বাতিল জিনিষের খাতায় তুলে ফেলে দিচ্ছেন। না ফেললে কিন্তু অনেক কাজেই লাগানো সম্ভব মগটাকে। ছোট্ট কোন গাছ রাখতে পারেন এমন মগে। বা পেন স্ট্যাণ্ড হিসেবে টেবিলেও থাকতে পারে মগটা।