লখনউ:  উত্তরপ্রদেশে বিপুল জনসমর্থন পেয়ে রাজকার্যে বসেছেন যোগী আদিত্যনাথ৷ গো-বলয়ে সংস্কারের একাধিক পদক্ষেপও নিয়েছেন তিনি৷ পেয়েছেন ডালাও প্রংশা৷ ক্ষমতায় আসার মাসখানিকে মধ্যেই নিজের মন্ত্রিসভার উপর নজর দিতে শুরু করেছেন যোগী৷ মন্ত্রীদের সম্পত্তিরও কড়া নজর রাখার কথাও জানিয়েছেন তিনি৷ প্রতিবছর, ৩১ মার্চের মধ্যে মন্ত্রিসভার সদস্যদের নিজের সম্পত্তির হিসাব জমা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ৷ মন্ত্রীদের সম্পত্তির হিসাব পেশের বিষয়ে কোনও ভাবেই নিয়ম শিথিল করা হবে না বলেও সাফ জানিয়েছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী৷

উত্তরপ্রদেশের শাসনভার নেওয়ার শপথ অনুষ্ঠানে যোগী নিজের মন্ত্রিসভার সদস্যদের সম্পত্তির হিসাব ১৫ দিনের মধ্যে জমা দেওয়া নির্দেশ দিয়েছিলেন৷ ওই নির্দেশ জারি কার্যকর হওয়ার পর আজ, মঙ্গলবার ফের মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দেন, এবার থেকে প্রতি বছরই নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যেই জমা দিতে হবে সম্পত্তির হিসাব৷ এমনকী, মন্ত্রীদের উপর নজর রাখতে তাঁদের ব্যবসার সংক্রান্ত সমস্ত তথ্যও জানতে চাওয়া হয়েছে বলে খবর৷ পাশাপাশি, কর ফাকি রুখতে পাঁচ হাজার টাকার বেশি মূল্যে কোনও উপহার দেওয়ার বিষয়টি হিসাবের মধ্যে রাখা যাবে না বলেও জানানো হয়েছে৷ এমনকি, মন্ত্রীদের বিনোদনের খবরের উপর লাগাম টানতেও একাধিক নির্দেশ জারি করা হয়েছে৷ বিলাসবহুল জীবন চর্চার উপরও লাগাম টানার কথা বলা হয়েছে৷ মন্ত্রীর হাওয়া-বদলের ক্ষেত্রেও বেশ কিছু বিধিনিষেধ জারি করা হয়েছে৷ কাজ বা ব্যক্তিগত ভ্রমণে সরকারি বাংলো বা সরকারি কটেজগুলি ব্যবহার করার জন্যও বলা হয়েছে৷ এদিন মন্ত্রীদের উটার বাজানো গাড়ি ব্যবহার নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ বলেন, ‘‘মন্ত্রীদের সাইরেন বাজানো গাড়ি ব্যবহার কমাতে বলা হয়েছে৷ সাইরেন বাজলে শব্দ দূষণের সৃষ্টি হয়৷’’