স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: এতদিন গঙ্গার দু’দিকের পারের সৌন্দর্যায়নের কাজ চলছিল৷ এবার নদীর জলকে পরিশোধিত করতে গঙ্গায় ১ কোটি মাছের চাড়া ছাড়া হবে৷

তারই প্রাথমিক ধাপ হিসেবে বৃহস্পতিবার প্রায় ১০ হাজার রুই, কাতলা ও মৃগেল মাছের চারা ছাড়া হল গঙ্গায়৷ সেন্ট্রাল ইনল্যান্ড ফিসারিস রিসার্চ ইনস্টিটিউটের সহযোগিতায় এই মাছ ছাড়া হল৷

আরও পড়ুন: সম্পত্তির বিবাদের জেরে দাদাকে খুন করল ভাই

কেন্দ্রীয় জলসম্পদ উন্নয়নমন্ত্রক নমামী গঙ্গা প্রকল্পের মাধ্যমে গঙ্গাকে বাঁচানোর পরিকল্পনা নিয়েছে৷ তারই প্রথম ধাপ হিসেবে এদিন উত্তর ২৪ পরগনার বারাকপুরে গঙ্গায় মাছের চারা ছাড়া হল বলে প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে৷

মৎস্য বিজ্ঞানী ড. সন্দীপ বেহারা বলেন, ‘‘আমাদের উদ্দেশ্য গঙ্গা নদীকে পরিশোধিত করে সজীব ও বিশুদ্ধ নদীতে পরিণত করা। সেজন্যই আমরা লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছি চলতি বছরে গঙ্গায় মোট ১ কোটি মাছের চারা ছাড়ব।’’ একই সঙ্গে তাঁর সংযোজন, ‘‘ এর ফলে শুধু যে গঙ্গায় জলজ প্রাণীর সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে তাই নয়, মাছের উৎপাদনশীলতা বাড়বে৷ যার ফলে গঙ্গায় মাছ ধরতে আসা মৎস্যজীবীদের জীবিকার ক্ষেত্রেও সুবিধা হবে৷’’

আরও পড়ুন: নৈহাটি খুনে ধৃত তৃণমূলকর্মী, মেনে নিলেন অর্জুন সিং

মৎস্য বিজ্ঞানী সন্দীপ বেহারা বলেন,‘‘ শুধু বারাকপুর নয়, নমামী গঙ্গা প্রকল্পের মাধ্যমে গোটা দেশ জুড়ে গঙ্গার গতিপথে সর্বত্র গঙ্গাকে নতুন করে সংষ্কার করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এক্ষেত্রে দুভাবে গঙ্গাকে সংষ্কারের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। গঙ্গাতীরবর্তী অঞ্চল সাজিয়ে তোলা এবং গঙ্গায় জলজ প্রাণীর সংখ্যা বৃদ্ধির মাধ্যমে গঙ্গার জলকে পরিশোধিত করা।’’

আরও পড়ুন: স্বাস্থ্য দফতরের নির্দেশিকার জেরে অবসাদে আত্মঘাতী চিকিৎসক