কোচবিহার : উপনির্বাচনে শাসক দলের বিরুদ্ধে হুমকি ও সন্ত্রাসের অভিযোগ তুলে কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশনের কাছে দ্বারস্থ হচ্ছে বামেরা। শুক্রবার রাজ্য থেকে সিপিআইএম নেতা রবীন দেব ও কেন্দ্রীয় স্তরের কয়েকজন নেতা মুখ্য-নির্বাচন কমিশনারের কাছে অভিযোগ জানাবেন। আজ,বৃহস্পতিবার কোচবিহার জেলা সিপিআইএম এর দফতরে এক সাংবাদিক বৈঠক করে একথা জানালেন সিপিআই এম এর রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র ।

এদিন তিনি অভিযোগ করেন, বিভিন্ন এলাকায় বাম কর্মীদের হুমকি দেওয়া হচ্ছে , যারা গত বিধানসভা নির্বাচনে পোলিং এজেন্ট ছিল তাঁদের বেছে বেছে আগে থেকেই ভয় দেখানো হচ্ছে যাতে কেউ আবার কেউ পোলিং এজেন্ট না হয়।তার দাবী প্রচারের জন্য আবেদন করেও অনুমতি পাওয়া যাচ্ছেনা,অন্যদিকে শাসকদল অনুমতি ছাড়াই সভা করছে। এদিন প্রসাশনের বিরুদ্ধে পক্ষপাত মূলক আচরণের অভিযোগ করেন তিনি। উপনির্বাচনে কোচবিহার জেলার ১৪টি কোম্পানির কেন্দ্রীয় বাহিনীই যথেষ্ট নয় বলেও তিনি দাবী করেন তিনি৷
তারসঙ্গে তার আরও দাবি,যথাযথভাবে কেন্দ্রীয় বাহিনীকে যাতে ব্যবহার করা হয় তারজন্য নজর রাখতে হবে প্রশাসনকে। তিনি বলেন ‘গত বিধানসভা নির্বাচনের পরে যে আক্রমণ ছিল তা তীব্রতর করার চেষ্টা করছে। তৃণমূল কংগ্রেস আমাদের আক্রমণ করছে আর বিজেপির জন্য ময়দান ফাঁকা রাখছে,এতে রাজ্যের শাসক দলের সঙ্গে কেন্দ্রের শাসক দলের বোঝাপড়া স্পষ্ট হয়ে যাচ্ছে,’।

কোচবিহার লোকসভা উপনির্বাচনে এবারেও সন্ত্রাসকে ইস্যু করছে বামেরা তা সূর্যকান্ত মিশ্রের বক্তব্যেই পরিষ্কার । এদিন রাজ্যসম্পাদক জেলা নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন এবং তাঁদের কাছ থেকে বিভিন্ন অভিযোগ শোনেন । জেলা জুড়ে কিভাবে তাঁদের কর্মীদের উপর ভয় দেখানো হচ্ছে এবং প্রচারের জন্য ফ্লেক্স ফেস্টুন বা পতাকা লাগাতে দেওয়া হচ্ছেনা , এই ব্যাপারে ইতিমধ্যেই রিপোর্ট রাজ্য নেতৃত্বকে পাঠানো হয়েছে সেই বিপোর্ট নিয়েই মুখ্যনির্বাচন কমিশনের কাছে অভিযোগ জানানো হবে। এদিন সূর্যকান্ত মিশ্র বলেন ‘এখান থেকে রবীন দেব দিল্লী যাবেন,সেখানে কেন্দ্রীয় নেতারা কয়েকজন থাকবেন,’। এদিন সূর্যবাবু তাঁর কথার মাধ্যমে বুঝিয়ে দেন কোচবিহারে জেতা তাঁদের লক্ষ নয়,গত বিধানসভা নির্বাচন থেকে ভোট বৃদ্ধি তাঁদের লক্ষ।  তিনি আরও বলেন, ‘গত বিধানসভা নির্বাচনে আমাদের যা সমর্থন তা বাড়ানোর লক্ষে আমাদের লড়াই এবং বিশ্বাস আমরা তা বাড়াতে পরব,’। এদিন কোচবিহারের বানেশ্বরে একটি নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য রাখেন সূর্যকান্ত মিশ্র পরে কোচবিহার শহরের বিশ্বসিংহ রোডেও একটি পথসভা করেন তিনি।