স্টাফ রিপোর্টার, কোচবিহার: দু’দিন পর কোচবিহার রাজবাড়ির পিছন থেকে উদ্ধার হল এক যুবকের মৃতদেহ৷ শনিবার সকালে দেহটি রাজবাড়ি সংলগ্ন একটি দিঘিতে ভেসে উঠতে দেখা যায়৷ মৃতের নাম সন্তোষ বন্দ্যোপাধ্যায়৷

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার বিকেলে কোচবিহার রাজবাড়ি এলাকায় জুয়ার আসরে কোতয়ালি থানার পুলিশ হানা দিলে পুলিশকে দেখে সন্তোষ দিঘিতে ঝাঁপ দেয়৷ এলাকাবাসীর অভিযোগ, পুলিশের সামনে ওই যুবক ডুবে যেতে থাকলেও তাকে বাঁচানোর কোনও প্রকার চেষ্টা করেনি পুলিশ৷ এই ঘটনার পরই এলাকাবাসী পুলিশের ওপর চড়াও হয়৷

আরও পড়ুন: আইপিএলের বেটিং চক্রে জড়িত সন্দেহে গ্রেফতার চার

তবে ঘটনার পর দু’দিন ওই দিঘিতে তল্লাশি চালালেও যুবকের দেহটি পাওয়া যায়নি৷ অবশেষে শনিবার সকালে দিঘির জলে ওই যুবকের দেহ ভেসে ওঠে৷ পরে পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে স্থানীয় কোচবিহার এমজেএন হাসপাতালে পাঠায়৷

প্রসঙ্গত, আইপিএলকে কেন্দ্র করে জুয়ার রমরমা কোচবিহারে চরম পর্যায়ে পৌঁছেছে। পরিস্থিতি এতটাই ভয়াবহ যে জুয়ার ঠেকে হানা দিলেই দুষ্কৃতীদের হাতে আক্রান্ত হতে হচ্ছে পুলিশকে। বুধবার রাতে তল্লাশি অভিযান চালাতে গিয়ে পুলিশ আক্রান্ত হয়েছিল। বৃহস্পতিবার রাতেও সেই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হয়। ফের আক্রান্ত হয় কোচবিহারের কোতয়ালি থানার পুলিশ।

আরও পড়ুন: দেশের ৮টি রাজ্যে সংখ্যালঘু হিন্দুরা? সিদ্ধান্ত নেবে মোদী সরকার

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, কোচবিহার রাজবাড়ির পিছনে জুয়ার ঠেক চলছিল খবর পেয়ে হানা দিতে যায় কোতয়ালি থানার পুলিশ। পুলিশকে দেখে পাশের একটি দিঘিতে ঝাঁপ দেয় জুয়ার ঠেকে থাকা এক যুবক৷ এরপরেই উত্তেজিত এলাকাবাসী পুলিশের উপর চড়াও হয়। মারধর করা হয় দুই সিভিক ভলেন্টিয়ারকে। গুরুতর আহত অবস্থায় ওই দুজনকে কোচবিহার এমজেএন হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছিল।