কলকাতা: সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের হাত ধরেই ভারতের মাটিতে আবির্ভাব ঘটেছিল গোলাপি বলে দিন-রাতের ম্যাচের। ঘরোয়া ক্লাব ক্রিকেটের লিগ ম্যাচ ইডেনে অনুষ্ঠিত হয়েছিল গোলাপি বলে কৃত্রিম আলোয়। এবার সেই সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের হাত ধরেই ভারতের মাটিতে আত্মপ্রকাশ করতে চলেছে গোলাপি বলে দিন-রাতের টেস্ট ম্যাচ। বিসিসিআই দলিপ ট্রফির ম্যাচ পরীক্ষামূলকভাবে গোলাপি বলে ফ্লাড লাইটে আয়োজন করলেও এতদিন দিন-রাতের টেস্ট খেলার বিরোধী ছিল।

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বোর্ড সভাপতির আসনে বসেই সিওএ জমানার পুরনো ধারণাকে বদলে দিলেন। সৌরভ বরাবরই দিন-রাতের টেস্টের বড় সমর্থক ছিলেন। বিসিসিআই সভাপতি নির্বাচিত হওয়ার পর তিনি ইঙ্গিত দিয়েছিলেন অচিরেই ভারতীয় ক্রিকেট দিন-রাতের টেস্টের সাক্ষী থাকবে। তবে এত তাড়াতাড়ি সেই সিদ্ধান্ত কার্যকর করবেন মহারাজ, সেটা ভাবা যায়নি। বাংলাদেশে বিরুদ্ধে আসন্ন টেস্ট সিরিজে বিরাট কোহলিদের গোলাপি বলের টেস্টে হাতে খড়ি হবে।

ইডেনে ২২ নভেম্বর থেকে সিরিজের দ্বিতীয় তথা শেষ টেস্ট আয়োজিত হবে ফ্লাড লাইটের কৃত্রিম আলোয়। বিসিসিআইয়ের তরফে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল দিন-রাতের টেস্ট খেলার। সিনিয়র ক্রিকেটারদের সঙ্গে একাধিক বৈঠকের পর বিসিবি’র তরফে ভারতীয় বোর্ডের প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়।বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের কাছ থেকে সবুজ সংকেত পেয়ে বিসিসিআই সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়ে দেন ইডেনে ঐতিহাসিক দিন-রাতের টেস্ট আয়োজনের কথা। শুধু তাই নয়, সৌরভ চাইছেন ইডেনে দিন-রাতের টেস্ট ম্যাচকে বার্ষিক ক্যালেন্ডারে স্থায়ী জায়গা করে দিতে।

ইডেনে দিন-রাতের টেস্টের কথা ঘোষণা করে সৌরভ বলেন, ‘বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড সম্মতি জানিয়েছে এবং আমরা প্রথম দিন-রাতের টেস্ট আয়োজন করতে চলেছি। এটা একটা বড়সড় পদক্ষেপ। টেস্ট ক্রিকেটকে বাঁচিয়ে রাখতে এই উদ্যোগটার প্রয়োজন ছিল। আমি এবং আমার টিম দিন-রাতের টেস্ট আয়োজনে বদ্ধপরিকর ছিলাম। বিরাটকে ধন্যবাদ গোলাপি বলে টেস্ট খেলতে রাজি হওয়ার জন্য।’