করাচি: কিংবদন্তি ক্রিকেটার জাভেদ মিয়াঁদাদের ছেলের সঙ্গে মেয়ের বিয়ে দিয়ে পাক ক্রিকেটে সরাসরি ঢুকে পড়েছিলেন দাউদ ইব্রাহিম৷ আর ভারত-পাক ক্রিকেট দ্বি-পাক্ষিক সিরিজ বন্ধের অন্যতম কারণ ভারতের এই ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’৷

শনিবার পকিস্তানের বিরুদ্ধে বড়সড় কূটনৈতিক জয় পেয়েছে ভারত। পাকিস্তানের মাটিতে দাউদ ইব্রাহিমের থাকার কথা শেষ পর্যন্ত স্বীকার করে নিল ইসলামাবাদ৷ শুধু তাই নয়, এদিন পাক বিদেশমন্ত্রকের তরফে জানা গিয়েছে, দাউদের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট ও সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দিয়েছে ইমরান খানের সরকার৷

গত বছরই ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছিল পাকিস্তানেই লুকিয়ে রয়েছে ভারতের ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ দাউদ ইব্রাহিম৷ ১৯৯৩ সালে মুম্বই বিস্ফোরণের মূল পাণ্ডা দাউদকে তাদের হাত তুলে দেওয়ার জন্য পাকিস্তানের কাছে বারবার দাবি জানিয়ে এসেছে ভারত সরকার৷ কিন্তু তাতে কর্ণপাত করেনি পাকিস্তান৷ শুধু তাই নয়, দাউদ যে পাকিস্তানের মাটিতে রয়েছে, সেই দাবিও উড়িয়ে দিয়েছিল ইসলামাবাদ৷

ভারত-পাক কূটনৈতিক সম্পর্ক যত খারাপ হয়েছে, দু’দেশের ক্রিকেটীয় সম্পর্কে তার প্রভাব পড়েছে৷ অতীতে একথা শোনা গিয়েছে প্রাক্তন পাক অধিনায়ক শাহিদ আফ্রিদ মুখেও৷ ভারতের ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ সন্ত্রাসবাদী তথা আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন দাউদের সঙ্গে ক্রিকেটের সম্পর্ক কারোর অজানা নয়৷ এক সময় শারজায় ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট সিরিজে নিয়মিত ভিভিআইপি বক্সে বসে খেলা দেখতেন দাউদ৷ পাকিস্তান ক্রিকেটে ম্যাচ-গড়াপেটার অন্যতম কাণ্ডারিও এই আন্ডারওয়ার্ল্ড ডন৷ যেখান থেকে আজও বেরিয়ে আসতে পারেনি পাকিস্তান৷

দেড় দেশক আগে নিজের মেয়ের সঙ্গে কিংবদন্তি পাক ব্যাটসম্যান জাভেদ মিয়াঁদাদের ছেলের সঙ্গে বিয়ে দিয়ে পাকিস্তান ক্রিকেটে সরাসরি ঢুকে পড়েন দাউদ৷ ২৩ জুলাই, ২০০৫ প্রাক্তন পাক ক্রিকেট অধিনায়ক জাভেদ মিয়াঁদাদের ছেলে জুনাইদের সঙ্গে বিয়ে হয় ভারতের মোস্ট ওয়ান্টেড পলাতক দাউদ ইব্রাহিমের মেয়ে মাহরুখের৷ দুবাইয়ে হয়েছিল বিয়ের রাজকীয় আসর৷ মিয়াঁদাদের তরফে প্রথমে বিষয়টি অস্বীকার করা হলেও পরে স্বীকার করে নেন প্রাক্তন পাক অধিনায়ক৷

দাউদের মতো কুখ্যাত বেয়ায় থাকায় পাকিস্তান ক্রিকেটে আলপটকা মন্তব্য করতে মিয়াঁদাদকে৷ শুধু তাই নয়, একবার মিয়াঁদাদ-আফ্রিদ বাকযুদ্ধে দাউদ আফ্রিদিকে খুনের হুমকি দিয়েছিল বলেও খবর প্রকাশ্যে এসেছিল৷ প্রাক্তন পাক অধিনায়ক শাহিদ আফ্রিদিকে দাউদ সতর্ক করে বলেছিলেন, ভবিষ্যতে এরকম হলে পরিণতি একেবারে ভালো হবে না।

নিজের বিদায়ী ম্যাচ খেলার ইচ্ছে প্রকাশ করার পর আফ্রিদির সঙ্গে বাগ্‌যুদ্ধে জড়িয়েছিলেন মিয়াঁদাদের। টাকার জন্য আফ্রিদি বিদায়ী ম্যাচ চাইছেন বলে মন্তব্য করেছিলেন মিয়াঁদাদ৷ তাঁর এই মন্তব্যের জবাব দিতে গিয়ে আফ্রিদি মিয়াঁকে ‘টাকার কাঙাল’ বলে অভিহিত করেছিলেন। মিয়াঁদাদও এক ধাপ এগিয়ে গিয়ে বলেছিলেন, ‘আফ্রিদি জুয়াড়ি। ম্যাচ গড়াপেটার সঙ্গে যুক্ত।’ এই দুই পাক ক্রিকেটারের বাগযুদ্ধের আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণের মাঝেই নিজের বেয়াইয়ের পক্ষে হুমকির ডালি নিয়ে ময়দানে নেমে পড়েছিলেন কুখ্যাত ‘ডন’ দাউদ৷

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।