লন্ডন: অংশগ্রহণকারী ১৮টি দেশ, স্থান সবই মোটামুটি অপরিবর্তিত থাকল। কেবল করোনার গেরোয় একবছর পিছিয়ে গেল ডেভিস কাপ। কেবল ডেভিস কাপই নয় মারণ ভাইরাসের কারণে ফেড কাপের প্রথম সংস্করণ আয়োজনের ব্যাপারেও কোনওরকম ঝুঁকি নিতে চায়নি আন্তর্জাতিক টেনিস ফেডারেশন। তাই ডেভিস কাপের পাশাপাশি ফেড কাপও একবছর পিছিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল আইটিএফ।

হাঙ্গেরির রাজধানী শহর বুদাপেস্টে আগামী বছর ১৩-১৮ এপ্রিল বসবে অভিষেক ফেড কাপের আসর। অন্যদিকে চলতি বছর নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে স্পেনের রাজধানী শহর মাদ্রিদে বসার কথা ছিল ডেভিস কাপের আসর। একবছর পিছিয়ে ২০২১ সালের ২২ নভেম্বর থেকে শুরু হবে টুর্নামেন্ট। স্পেনের রাজধানী শহরেই অনুষ্ঠিত হবে টুর্নামেন্ট। চলবে সপ্তাহব্যাপী।

আইটিএফ প্রেসিডেন্ট ডেভিড হ্যাগার্টি এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, ‘এমন একটা সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা ভীষণই কঠিন কাজ ছিল। কিন্তু আন্তর্জাতিক স্তরে এমন একটা টিম ইভেন্ট আয়োজন করার ক্ষেত্রে যখন স্বাস্থ্য এবং নিরাপত্তা সংক্রান্ত ঝুঁকি দেখা দেয় তখন এমন একটা সিদ্ধান্তে উপনীত হতে হয়।’ চলতি বছর এপ্রিলে হাঙ্গেরির রাজধানী শহর বুদাপেস্টের ক্লে-কোর্টে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল ১২ দলের মহিলা টেনিস টুর্নামেন্ট ফেড কাপ। কিন্তু করোনা আবহে গত এপ্রিলে স্থগিত হয়ে যায় টুর্নামেন্টটি।

চলতি বছর ওই টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত করার জন্য আর উপযুক্ত সময় বার করা সম্ভব হয়নি। সে কারণেই একবছর পিছিয়ে ২০২১ এপ্রিলে ফেড কাপ আয়োজিত হবে বলে জানিয়েছে আইটিএফ। ভেন্যু অপরিবর্তিতই থাকবে। পাশাপাশি একই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে নতুন ফর্ম্যাটে শুরু হতে চলা ডেভিস কাপের ক্ষেত্রেও। উল্লেখ্য, করোনা ভাইরাসের জেরে গত মার্চ মাস থেকে স্পোর্টসের অন্যান্য সব মেজর সব ইভেনেটের সঙ্গে বন্ধ রয়েছে টেনিসের সমস্ত ট্যুর কিংবা গ্র্যান্ড স্ল্যাম টুর্নামেন্ট। ইউরোপের দেশগুলির পাশপাশি অন্যান্য সব দেশে ফুটবল লিগ ধীরে ধীরে শুরু হলেও টেনিস শুরু করা যায়নি এখনও।

আগামী ৩১ অগস্ট থেকে শুরু হবে ইউ এস ওপেন। তার আগে সম্প্রতি নিজস্ব উদ্যোগে বেলগ্রেড শহরে চ্যারিটি টুর্নামেন্ট আদ্রিয়া ট্যুরের আয়োজন করেছিলেন নোভাক জকোভিচ।ওই টুর্নামেন্টে অংশ নিয়ে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন খদ জকোভিচ সহ আরও চার টেনিস প্লেয়ার।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ