অ্যাডিলেড: সপ্তম অজি ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্ট ক্রিকেটে ট্রিপল সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে তাঁকে দেওয়া বীরেন্দ্র সেহওয়াগের টিপস রি-কল করলেন ডেভিড ওয়ার্নার। টেস্ট ক্রিকেটে এক ইনিংসে স্যার ডোনাল্ড ব্র্যাডম্যানের সর্বোচ্চ রানের ইনিংস (৩৩৪) ছাপিয়ে ওয়ার্নার জানালেন সেহওয়াগই তাঁকে বলেছিলেন টি-২০ নয়, বরং একজন ভালো টেস্ট ব্যাটসম্যান হওয়ার যাবতীয় রসদ তোমার মধ্যে রয়েছে।

নির্বাসন কাটিয়ে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে অ্যাশেজ সিরিজে প্রত্যাশাপূরণ করতে ব্যর্থ হয়েছিলেন। কিন্তু পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে ফের স্বমহিমায় প্রাক্তন অজি ভাইস-ক্যাপ্টেন। গাব্বায় ১৫৪ রানের পর দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৩৩৫ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে ওয়ার্নার সাংবাদিক সম্মেলনে জানালেন, ‘আইপিএলে দিল্লির হয়ে খেলার সময় বীরেন্দ্র সেহওয়াগ একবার আমায় বলেছিল টি-২০’র চেয়েও আমি আগামিদিনে একজন ভালো টেস্ট ব্যাটসম্যান হতে পারি। উত্তরে আমি বলেছিলাম, তোমার কোথাও ভুল হচ্ছে, আমি খুব বেশি প্রথম শ্রেনীর ক্রিকেট খেলিনি।’

কিন্তু এরপর ফিল্ডিং পজিশন উল্লেখ করে সারাদিন ক্রিজে পড়ে থাকার একটি মহামূল্যবান টিপ সেহওয়াগ তাঁকে দিয়েছিলেন। সেই টিপস মনে গেঁথে গিয়েছিল ওয়ার্নারের। অ্যাডিলেডে মহাকাব্যিক ৩৩৫ রানের ইনিংস খেলে বীরুর সেই টিপস রোমন্থন অস্ট্রেলিয়ার বিগ হিটার ব্যাটসম্যানের গলায়। অ্যাশেজে ৫ টেস্টে মাত্র ৯৫ রান করার পর অনুরাগীদের প্রায় সকলেই নাক সিঁটকেছিলেন। কিন্তু ঘরের মাঠে অনভিজ্ঞ পাক বোলিং আক্রমণকে শাসন করে ফের তিনি প্রমান করলেন ওয়ার্নার আছে ওয়ার্নারেই।

আরও পড়ুন: সো কিউট! বিবাহবার্ষিকীতে যুবরাজ-হ্যাজেলকে শুভেচ্ছাবার্তা ওয়ার্নারের

গাব্বায় ১৫৪ রানের পর অ্যাডিলেডে পিঙ্ক বলে অপরাজিত ৩৩৫ রান করে অজি ওপেনার তাই বলছেন, ‘যারা সন্দেহ প্রকাশ করছিল তাদের জানান দেওয়া প্রয়োজন ছিল। অ্যাশেজ চলাকালীন আমি সবসময় বলে এসেছি, আমি রানের মধ্যে নেই কিন্তু ফর্ম হারিয়ে ফেলিনি।’ তাই ইংল্যান্ড থেকে ফিরে বাইরের কথায় বিশেষ কান দেননি ওয়ার্নার বরং নিজেই নিজের আস্থা হয়ে উঠেছিলেন। গাব্বায় প্রথম টেস্ট শুরুর আগে নেটে ৩,৫০০ থেকে ৪,০০০ বল ফেস করেছিলেন, এমনটাই জানিয়েছেন ওয়ার্নার।

আরও পড়ুন: হায়দরাবাদের ঘটনায় ‘লজ্জিত’ বিরাট

সবমিলিয়ে স্যান্ডপেপার গেট কান্ডের নায়ক বলছেন, ‘রাতারাতি আমুল পরিবর্তন সম্ভব হয়নি। নেটে কঠোর পরিশ্রমের ফসল এটা।’ পাশাপাশি কখনও নিজের উপর সন্দেহ করেননি এবং তিনি যে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী একজন মানুষ সেটাও জানাতে ভোলেননি প্রাক্তন অজি সহ-অধিনায়ক।