হায়দরাবাদ: একটা বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বানপ্রস্থে গিয়েও ব্যাট ছিল তাঁর আগের মতোই ক্ষুরধার। দ্বাদশ আইপিএলের প্রথম ম্যাচ থেকেই ডেভিড ওয়ার্নার বুঝিয়ে দিয়েছেন সে কথা। ১২ ম্যাচ খেলে ৮টি অর্ধশতরান ও ১টি শতরান সহযোগে ঝুলিতে ৬৯২ রান। কিন্তু শিয়রে বিশ্বকাপ। তাই ইচ্ছে থাকলেও আইপিএলের বাকি ম্যাচগুলো  আর খেলা হবে না ওয়ার্নারের।

১২ তম রাউন্ড অবধি অরেঞ্জ ক্যাপের মালিক হয়েই ভারতের মাটি ছাড়লেন বিধ্বংসী অজি ওপেনার। এবারের মত হিসেব-নিকেশ চুকিয়ে বিশ্বকাপের জন্য প্রস্তুতি শিবিরে যোগ দিতে দেশে ফিরে গেলেন ওয়ার্নার। দুরন্ত একটি মরশুম শেষ করে স্বভাবতই যাওয়ার বেলায় আবেগঘন অজি ব্যাটসম্যান। একইসঙ্গে ওয়ার্নারকে মিস করবে হায়দরাবাদ ফ্র্যাঞ্চাইজিও।

ভারত ছাড়ার আগে সোশ্যাল মিডিয়ায় এক আবেগঘন বার্তায় অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন সহ-অধিনায়ক লেখেন, ‘পাশে থাকার জন্য সানরাইজার্স পরিবারকে আমার কৃতজ্ঞতা জানানোর ভাষা নেই। কেবল এই মরশুমের জন্য নয়, গত মরশুমের জন্যও। দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর ফিরতে পেরে ভীষণ খুশি।’

মরশুমের মাঝপথে ওয়ার্নার দেশে ফিরে যাওয়ায় সতীর্থের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় বার্তা দিলেন হায়দরাবাদের আফগান স্পিনার রশিদ খানও। দেশের উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়ার আগে ওয়ার্নারের সঙ্গে বিমানবন্দরে তোলা একটি ছবি টুইটারে পোস্ট করেন রশিদ। সঙ্গে ছিলেন মহম্মদ নবিও। রশিদ লেখেন, ‘তোমার জার্নি নিরাপদ হোক। আমরা প্রত্যেকেই তোমায় খুব মিস করছি। বিশেষ করে মাঠে আমায় মাসাআল্লাহ এবং ইনসাআল্লাহ বলে আমায় উদ্বুদ্ধ করার বিষয়টি ভীষণ মিস করব। খুব শীঘ্র বিশ্বকাপে দেখা হবে।’

দুর্ধর্ষ একটি মরশুম শেষের পর ওয়ার্নারকে প্রশংশায় ভরিয়ে দিয়েছেন দলের কোচ টম মুডিও। টুইটারে হায়দরাবাদ কোচ লেখেন, ‘ওয়ার্নারের আরেকটি দারুণ আইপিএল মরশুম কাটল। দক্ষতাকে ছাপিয়েও তাঁর চরিত্র, দৃঢ়তা বেশি করে প্রকাশ পেয়েছে চলতি মরশুমে।’

পচামড়াজাত পণ্যের ফ্যাশনের দুনিয়ায় উজ্জ্বল তাঁর নাম, মুখোমুখি দশভূজা তাসলিমা মিজি।