লন্ডন: স্কাই ব্লুজ জার্সিতে দাভিদ সিলভার ৪০০তম ম্যাচ, সার্জিও আগুয়েরোর ৪০০ তম কেরিয়ার গোল, প্রিমিয়র লিগে কেভিন দি ব্রুয়েনার রেকর্ড ৫০তম অ্যাসিস্ট। দলের তিন ফুটবলারের ব্যক্তিগত মাইলস্টোন গড়ার দিনে প্রিমিয়র লিগে জয়ে ফিরল ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়ন ম্যাঞ্চেস্টার সিটি। গত ম্যাচে টটেনহ্যামের বিরুদ্ধে ড্র করার পর রবিবার অ্যাওয়ে ম্যাচে বোর্নমাউথকে ৩-১ গোলে পরাজিত করল পেপ গুয়ার্দিওলার ছেলেরা। জোড়া গোলে ম্যাচ জয়ের নায়ক আগুয়েরো, একটি গোল রহিম স্টার্লিংয়ের।

কেরিয়ারে ৪০০ গোলের মাইলফলক স্পর্শ করতে এদিন জোড়া গোলই প্রয়োজন ছিল আর্জেন্তাইন স্ট্রাইকারের। ম্যাচের ১৫ মিনিটে দলের হয়ে গোলমুখ খোলেন জাতীয় দলের জার্সিতে লিওনেল মেসির সতীর্থ। কেভিন দি ব্রুয়েনা ব্যর্থ হলে বক্সের ভিতর আলগা একটি বল ধরে বিপক্ষ গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন অরক্ষিত আগুয়েরো। ৪২ মিনিটে ক্লাবের জার্সিতে ৪০০ ম্যাচ খেলতে মাঠে নামা দাভিদ সিলভার থ্রু’কে কাজে লাগিয়ে ব্যবধান ২-০ করেন ইংরেজ স্ট্রাইকার রহিম স্টার্লিং।

যদিও প্রথমার্ধের বাঁশি বাজার আগেই ব্যবধান কমিয়ে ম্যাচে ফিরে আসে বোর্নমাউথ। অতিরিক্ত সময়ে পরিবর্ত হ্যারি উইলসনের বাঁক খাওয়ানো দুরন্ত ফ্রি-কিক শরীর শূন্যে দিয়েও নাগাল পাননি এডেরসন। ঘরের মাঠে দ্বিতীয়ার্ধে বোর্নমাউথের ম্যাচে ফেরার সুযোগ থাকলেও আগুয়েরোর দ্বিতীয় গোল সেই পথ বন্ধ করে দেয়। ৬৪ মিনিটে আর্জেন্তাইন স্ট্রাইকারের দ্বিতীয় গোলের পিছনেও অবদান রাখেন সিলভা। একক দক্ষতায় স্প্যানিশ মিডিও বল নিয়ে বক্সে প্রবেশ করলে তা সংগ্রহ করে জালে রাখেন আগুয়েরো। একইসঙ্গে কেরিয়ারে ৪০০ গোলের মালিক হন তিনি।

ম্যাচে শেষে সিটি কোচ গুয়ার্দিওলা প্রশংসায় ভরিয়ে দেন ক্লাবের কিংবদন্তি দাভিদ সিলভাকে। সিলভা তাঁর চোখে দেখা অন্যতম সেরা ফুটবলার। সিলভা, আগুয়েরোর কীর্তি স্থাপনের দিনে নজির গড়লেন বেলজিয়ান কেভিন দি ব্রুয়েনাও। বোর্নমাউথের বিরুদ্ধে আগুয়েরোর প্রথম গোলের সুযোগটি তাঁর পা ছুঁইয়েই আসে। তাই প্রথম গোলের অ্যাসিস্টর হিসেবে তাঁর নাম নির্বাচিত হওয়ায় দ্রুততম ফুটবলার হিসেবে প্রিমিয়র লিগে ৫০ গোল অ্যাসিস্ট করলেন ব্রুয়েনা।

এই ম্যাচ জয়ের ফলে ৩ ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলে দু’নম্বরে উঠে এল সিটি।