ওয়াশিংটন- নীলছবিতে অভিনয়কেই পেশা হিসেবে বেছে নিতে চান বিশ্ববিখ্যাত পরিচালক স্টিভেন স্পিলবার্গের মেয়ে মিকেলা জর্জ স্পিলবার্গ। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের কাছে সাক্ষাৎকারে এই ইচ্ছের কথা নিজেই জানিয়েছেন মিকেলা। এখন শুধু যৌনকর্মীর লাইসেন্সের অপেক্ষা। সেই লাইসেন্স হাতে এলেই পর্নোগ্রাফিতে আনুষ্ঠানিক ভাবে অভিনয়ের কাজ শুরু করবেন তিনি।

২৩ বছর বয়সি মিকেলা নিজেই জানিয়েছেন যৌনকর্মীর লাইসেন্স পেলেই তিনি অ্যাডাল্ট বিনোদন জগতে প্রবেশ করতে পারবে। তাঁর এই সিদ্ধান্তে সম্মতি জানিয়েছেন তাঁর বাবাও। এই মিকেলা ১৯৯৬ সালে স্টিভেন স্পিলবার্গ ও তাঁর স্ত্রী কেট ক্যাপস দত্তক নেন।

যেহেতু তিনি স্টিভেন স্পিলবার্গের মেয়ে, তাই অনেকেই ভেবেছিলেন মিকেলাকে অভিনয় বা পরিচালনাতেই দেখা যাবে। এই প্রসঙ্গে মেকিলা বলছেন, আমি বরাবরই খুব কামুক ধরনের মানুষ। সেই জন্য সমস্যাও হয়েছে। কখনও অন্য কেউ আমায় জোর করেনি। আসলে মানুষ এই বিষয়টিকে এখনও সহজ ভাবে নিতে পারে না। আমি অন্তত এটা বোঝাতে চাই নিজের জন্য নিজের শরীরে ব্যবহার ভুল কিছু নয়।

তাহলে কি শুধুমাত্র রুজিরুটির জন্যই এই পেশাকে বেছে নিলেন মিকেলা। তরুণী সাফ জানিয়েছেন, তিনি বাবা-মায়ের উপর নির্ভর করে থাকতে চান না। কিন্তু এমন না যে তাঁর আর কোনও পেশায় যাওয়ার ক্ষমতা নেই। বরং স্বেচ্ছায় ইতিবাচক ভাবেই এই পেশাকে বেছে নিয়েছেন তিনি।

আর এই পেশায়ে আসার সম্পূর্ণ সমর্থন রয়েছে বাবা স্টিভেন স্পিলবার্গের। তবে বাবা-মাকে প্রথমে পেশার কথা বলা সহজ ছিলনা। কিন্তু তাঁদের প্রতিক্রিয়া অবাক করেছে বলে জানিয়েছেন মিকেলা। তাঁর কোনও রকম আপত্তি না জানিয়েই সম্মতি জানিয়েছেন।

তবে পর্ন তারকা হয়ে যে কোনও অভিনেতার সঙ্গে সঙ্গম করতে চান না মিকেলা। একমাত্র নিজের ফিয়নসে কুক প্যাঙ্কুয়ের সঙ্গেই তাঁকে দেখা যাবে বলে জানিয়েছেন মিকেলা।