পানাজি: একাধিক অধিনায়ক নয়, বরং একমাত্র অধিনায়কেই ভরসা রাখলেন এসসি ইস্টবেঙ্গল কোচ রবি ফাওলার। স্কটিশ ডিফেন্ডার ড্যানি ফক্সকে অভিষেক আইএসএল মরশুমে অধিনায়কের গুরুদায়িত্ব সঁপে দিলেন ফাওলার। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছিল আপফ্রন্টে অভিজ্ঞ দেশের অন্যতম সেরা স্ট্রাইকার জেজে লালপেখলুয়ার হাতে থাকবে ইস্টবেঙ্গলের অধিনায়ক আর্মব্যান্ড। কিন্তু সব দেখেশুনে ডার্বির প্রাক্কালে বৃহস্পতিবার স্কটিশ ড্যানি ফক্সকেই অধিনায়ক ঘোষণা করলেন লিভারপুল লেজেন্ড।

সাউদাম্পটন এবং বার্নলের হয়ে ইংলিশ প্রিমিয়র খেলার অভিজ্ঞতাসম্পন্ন ফক্স এর আগে নটিংহ্যাম ফরেস্ট এবং উইগান অ্যাথলেটিকেরও দায়িত্ব সামলেছেন। ইংলিশ চ্যাম্পিয়নশিপের মত মঞ্চে অধিনায়কের দায়িত্ব সামলানো এই ডিফেন্ডারকে তাই অনেক ভেবেচিন্তেই দায়িত্ব সঁপে দিলেন ফাওলার। একটি অফিসিয়াল বিবৃতিতে অধিনায়ক নির্বাচন প্রসঙ্গে ইস্টবেঙ্গল কোচ ফাওলার জানিয়েছেন, ‘আমি ড্যানিকে বহুদিন ধরে চিনি এবং আমার দৃঢ় বিশ্বাস ওর মধ্যে নেতৃত্ব দেওয়ার যাবতীয় ক্ষমতা রয়েছে। গত দু’সপ্তাহের অনুশীলনে ও দলের বাকিদের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছে এবং সতীর্থদের মধ্যে ভীষণ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।’

তবে ফাওলারের মতে তাঁর দলে নেতার অভাব নেই। কিন্তু ড্যানি নেতাদের নেতা। আর অধিনায়কের গুরুদায়িত্ব কাঁধে নিয়ে তৈরি সাউদাম্পটন, উইগানের প্রাক্তনী জানাচ্ছেন, ‘এটা বিরাট একটা দায়িত্ব তবে আমি প্রস্তুত। গ্যাফার আমার প্রতি আস্থা রেখেছেন আমি কোনওমতেই সেই আস্থার অমর্যাদা হতে দেব না। দলটা সত্যিই দারুণ একাত্ম হয়ে গিয়েছে এবং দলের অন্দরমহলে একটা ইতিবাচক মনোভাব বিরাজ করছে।’

এদিকে ফক্সের ডেপুটি হিসেবে ফাওলার বেছে নিয়েছেন সিনিয়র কেরিয়ারে চারশোরও বেশি ম্যাচ খেলা নরউইচ সিটির প্রাক্তনী অ্যান্থনি পিলকিংটনকে। উল্লেখ্য, ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেড অ্যাকাডেমির এই প্রাক্তনী উইগানেও ফক্সের সতীর্থ ছিলেন। ২০১১-১৪ নরউইচ সিটির হয়ে কেরিয়ারের অন্যতম সেরা সময় কাটানো উইঙ্গার সহ-অধিনায়ক নির্বাচিত হয়ে বলছেন, ‘এসসি ইস্টবেঙ্গলের সহ-অধিনায়ক নির্বাচিত হওয়ায় আমার আরও দায়িত্ব বাড়ল। আমি খুশি যে গ্যাফার আমার প্রতি বিশ্বাস দেখিয়েছেন এবং আমি লাল-হলুদ জার্সিতে আমার সবকিছু উজাড় করে দিতে প্রস্তুত। আমাদের দলে একাধিক নেতা রয়েছে এবং একে অপরকে সর্বদা সমর্থন জুগিয়ে চলেছে। সবকিছুর ঊর্ধ্বে আমাদের একটাই লক্ষ্য অভিষেক আইএসএল মরশুমে ভালো ফল করা।’

উল্লেখ্য, শুক্রবার ভাস্কোর তিলক ময়দানে চির-প্রতিদ্বন্দ্বী এটিকে-মোহনবাগানের বিরুদ্ধে ডার্বি যুদ্ধ দিয়ে আইএসএলে পথ চলা শুরু করছে ইস্টবেঙ্গল।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।