পাটনা: ফের বিহার। সমষ্টিপুরের হিউদ্দিন নগর থানার অর্কেস্ট্রাল প্রোগ্রামে গুলিবিদ্ধ এক নর্তকী। জানা গিয়েছে, একটি অবৈধ অস্ত্রের গুলিতে আহত হন ওই নর্তকী। আহত অবস্থায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তিনি। তাঁর অবস্থা এখনও উদ্বেগজনক রয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

জানা গিয়েছে, রাত আড়াইটা নাগাদ বিউটি কিন্নার নামে এক নৃত্যশিল্পীকে জোর করে টানতে টানতে নিয়ে যেতে চায় একদল যুবক। ওই নৃত্যশিল্পীর সহকারি এই দেখে তাঁদেরকে আটকাতে গেলে কোনও এক ব্যক্তি গুলি চালিয়ে দেয়। যার জেরে আহত হয়ে মঞ্চে পড়ে যান ওই নর্তকী। কিন্তু বিস্ময়কর ব্যাপার হল এসব দেখেও ছুঁতে আসেনি কেউ, বরং সবাই ব্যস্ত থাকে ভিডিও বানাতে।

ঘটনার জেরে এলাকায় বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়। আশেপাশে উপস্থিত কয়েকজন আহত নর্তকীকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে অর্কেস্ট্রাল আয়োজককে গ্রেফতার করে। একই সঙ্গে গুলি চালানো যুবকের খোঁজ শুরু হয়েছে। জানা গিয়েছে ছট পুজোর পরে আয়োজন করা ওই অনুষ্ঠানে প্রায় ৬ জন নৃত্য শিল্পীকে ডেকে আনা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, এক নৃত্যশিল্পী ঘটনায় পুলিশের কাছে এফআইআর দায়ের করেছেন। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, অন্য এক ব্যক্তির নির্দেশে এক যুবক গুলি চালিয়েছে তাঁকে লক্ষ্য করে। পুলিশ আধিকারিক সুমন কুমার জানিয়েছেন, এ ঘটনায় সমস্ত অপরাধীদের গ্রেফতার করা হবে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।