মালদহঃ তৃণমূল যুব’র নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন এবং এনআরসি বিরোধী মঞ্চে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি পোস্টারে দিয়ে অশ্লীল নাচ মঞ্চে। আর এই অশ্লীল নাচ ঘিরে বিতর্ক। ছোট পোশাকে উদ্দাম নাচ ২ যুবতীর। আর এই ঘটনায় উঠছে প্রশ্ন। জেলা জুড়ে বিতর্ক। প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছে বিরোধীরাও। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি মালদহের হরিশ্চন্দ্র ব্লকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ছবি ভাইরাল হতেই অস্বস্তিতে তৃণমূল শিবির।

জানা গিয়েছে, হরিশ্চন্দ্রপুর ব্লকের যুব সভাপতি বুলবুল খানের উদ্যোগে বিশ্ব নাথ মেমোরিয়াল ক্লাবের উদ্যোগে নৈশ্যকালীন টিটুয়েন্টি ক্রিকেট খেলার আয়োজন করা হয়। সেখানে বিশাল মঞ্চ গড়া হয়। সেই মঞ্চে একেবারে ছোট কাপড়ে মহিলাদের অশ্লীল নাচ শুরু হয়। সেই নাচের মঞ্চে ব্যানারে এন আর সি এবং সি এ এ বিরোধী আন্দোলন মঞ্চ তৈরি করা হয়। পোস্টারে বড়বড় করে মুখ্যমন্ত্রীর ছবি। আর সেখানেই স্বল্প পোশাকে ২ যুবতীকে চটুল গানের সঙ্গে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করে নাচতে দেখা গেল। সোশ্যাল মিডিয়াতে সেই নাচের ভিডিও ভাইরাল হতে বেশি সময় নেয়নি। এই ভিডিও নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে জেলা তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব।

জেলা কংগ্রেসের সম্পাদক কালি সাধন রায় জানান, কোনও রাজনৈতিক দল যে কোনও বিষয়ে প্রতিবাদ জানাতে পারে। তবে মুখ্যমন্ত্রী পোস্টারের সঙ্গে অশ্লীল নাচ পরিচয় দেয় তাদের রুচির। যা জঘন্যতন কাজ। এটা কখনও মেনে নেওয়া যায় না। যেখানে সুপ্রিম কোন কিছু মানে না। সেখানে মানুষের থেকে বেশী কি আশা করা যায়।

অন্যদিকে, বিজেপি জেলা সহ সভাপতি অজয় গঙ্গোপাধ্যায় জানিয়েছেন, খেলার নামে অশ্লীল নাচ এটাই তৃণমূলের কালচার। তাদের কাছ থেকে এর থেকে বেশি কি আশা করা যায়। আর যার নেতৃত্বে এই ধরনের ঘটনা হয়েছে তার পরিচয় এলাকায় ভালো নয়। আর সে শাসকদলের যুবর পদেও রয়েছে। আর মানুষ সব দেখছে এর যোগ্য জবাব দেবে।

বিষয়টি নিয়ে একেবারে স্পিকটি নট স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব। যদিও সূত্রের খবর, ভিডিও ভাইরাল হতেই নড়েচড়ে বসেছে স্থানীয় নেতৃত্ব। কীভাবে এই ঘটনা ঘটল তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। সূত্রের খবর, ঘটনায় জড়িতদের কড়া শাস্তিও দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় এক তৃণমূল নেতা।