প্রতীতি ঘোষ, বারাকপুর: উত্তর ২৪ পরগনার দক্ষিণেশ্বর মন্দির সংলগ্ন বরানগর আলমবাজার ট্যাক্সি স্ট্যান্ডের ট্যাক্সি চালকদের উপর পুলিশি অত্যাচারের অভিযোগকে কেন্দ্র করে শুক্রবার চাঞ্চল্য ছড়াল। অভিযোগ, সুশান্ত বাগ নামে এক ট্যাক্সি চালককে বিনা প্ররোচনায় বৃহস্পতিবার রাতে মারধর করা হয়েছে। ওই ট্যাক্সি চালকের দোষ ছিল সে দক্ষিণেশ্বর স্কাই ওয়াক সংলগ্ন এলাকায় তার গাড়ি দাঁড় করিয়েছিল। ওই ট্যাক্সি চালকের বক্তব্য, গাড়ি সরিয়ে নেওয়ার কোন কথা না বলেই পুলিশ কর্মীরা অকথ্য ভাষায় গালাগালি দিয়ে তাকে প্রকাশ্যে মারধর শুরু করে।

শুধু তিনিই নয়, দক্ষিণেশ্বর এলাকার ট্যাক্সি চালকদের অভিযোগ, গত মাস তিনেক ধরে মাঝে মধ্যেই কারনে অকারনে দক্ষিণেশ্বর এলাকার ট্যাক্সি চালকদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করছে পুলিশ কর্মীরা। ট্যাক্সি চালকদের গাড়ি দাঁড় করানো নিয়ে সামান্য বেনিয়ম দেখলেই তাদের মারধোর করা হচ্ছে বলে অভিযোগ। ট্যাক্সি চালকরা বলছেন, তারা সব সময় পুলিশের সঙ্গে সহযোগিতা করেই গাড়ি চালান। তবু ট্যাক্সি চালকদের সব সময় আতঙ্কিত থাকতে হয়।

ট্যাক্সি চালকদের আরও অভিযোগ, রাস্তায় অন্য কোন গাড়ি থাকলে কিংবা অন্য গাড়ি বেনিয়ম করলে তাদের কিছু না বললেও এলাকার এই সমস্ত ট্যাক্সি থাকলেই তাদের বিরুদ্ধে কোন না কোন মামলা দায়ের করে চলেছে পুলিশ। এই বিষয়ে প্রতিবাদ করলেই পুলিশের কাছ থেকে জুটছে গালিগালাজ, এমনটাই অভিযোগ। বৃহস্পতিবার রাতে এমনই ঘটনা ঘটে আলম বাজারের ট্যাক্সি চালক সুশান্ত বাগের সঙ্গে। তাকে দক্ষিনেশ্বর মন্দির সংলগ্ন এলাকায় অকারনে মারধোর করা হয় বলে অভিযোগ। এরপর থেকে আতঙ্কে ভুগছে ওই এলাকার অন্যান্য ট্যাক্সি চালকরা সকলেই। বরানগর থানা এবং দক্ষিণেশ্বর ফাঁড়ির পুলিশ কর্মীরা অবশ্য ওই ট্যাক্সি চালককে শারীরিক হেনস্থার বিষয়টি সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন।