নয়াদিল্লিঃ  অবশেষে কিছুটা হলেও স্বস্তির খবর শোনাচ্ছে মৌসম ভবন। গুজরাত উপকূল থেকে ক্রমশ দূরে সরে যাচ্ছে সাইক্লোন বায়ু। এর আগে আগামী ৪৮ ঘন্টায় আরও শক্তি বাড়িয়ে কচ্ছ উপকূলের উপরে সাইক্লোন আছড়ে পড়বে বলে পূর্বাভাসে জানিয়েছিল হাওয়া অফিস। সতর্কতা জারি করে পূর্বাভাসে জানানো হয়েছিল যে, আগামী ১৭ থেকে ১৮ জুনের মধ্যেই কচ্ছের উপকূলে এই সুপার সাইক্লোন আছড়ে পড়তে পারে। কিন্তু গত কয়েক ঘন্টা আগে দেওয়া মৌসম ভবনের বুলেটিনে স্বস্তির খবর শোনান হয়েছে।

যেখানে বলা হয়েছে যে গত কয়েক ঘন্টায় ফের পরিবর্তন হয়েছে সাইক্লোন বায়ুর গতিপথে। পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে যে, গত কয়েক ঘন্টায় গুজরাত উপকূল থেকে বেশ কিছুটা সরে গিয়েছে। এই মুহূর্তে দিউ থেকে মাত্র ৪১৫ কিলোমিটার দূরে রয়েছে আর পোরবন্দর থেকে ৩০৫ কিমি দূরে। যার ফলে উপকূলবর্তী এলাকায় প্রবল বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনার কথা জানিয়েছে মৌসমভবন।

দিল্লির জাতীয় আবহাওয়া দফতরে তরফে পূর্বাভাসে জানানো হয়েছে, আগামী কয়েক ঘন্টায় উপকূলবর্তী এলাকায় ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টিপাত হতে পারে। পাশাপাশি ঝড়ো হাওয়া প্রবল গতিতেও বইতে পারে পূর্বাবভাসে জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা। পোরবন্দর, দিউয়ে ইতিমধ্যে ঘন্টায় ২৫ কিমি বেগে ঝড়ো হাওয়া বইতে শুরু করেছে। তবে মনে করা হচ্ছে সাইক্লোনটি যত কাছে আসবে তত হাওয়ার গতিবেগও বাড়তে থাকবে। তবে মনে করা হচ্ছে, যেভাবে সাইক্লোনটি শক্তি পাকিয়েছিল সেভাবে উপকূলের উপর আছড়ে পড়বে না। ধীরে ধীরে এটির শক্তিক্ষয় হবে বলে মনে করা হয়েছে। মৌসমভবন মনে করছে আগামী ২৪ ঘন্টা অর্থাৎ রবিবার যখন বায়ু উপকূলে আছড়ে পড়বে তখন শুধুমাত্র ঝড় হয়েই আছড়ে পড়তে পারে।

উল্লেখ্য, এর আগেই কেন্দ্রীয় আর্থ সায়েন্সের তরফে সাইক্লোন নিয়ে আতঙ্কিত না হওয়ারই পরামর্শ দিয়েছে। কেন্দ্রীয় আর্থ সায়েন্সের আধিকারিক এম রাজীবন জানিয়েছেন, ৪৮ ঘন্টার মধ্যে ঘুর্ণিঝড় বায়ু আছড়ে পড়বে। কিন্তু সাইক্লোন বায়ু গতি হারাতে পারে বলে মত তাঁর। শুধু তাই নয়, ঝড় কিংবা গভীর নিম্নচাপেও বায়ু পরিণত হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।