সুভা: কয়েকদিন ধরেই ঘূর্ণিঝড় তৈরি হচ্ছিল। শনিবার ক্যাটাগরি ৩ -এর আকার নিল সেই ঝড়। ফিজি পেরি্যে টংগার দিকে এগোচ্ছে সেই ঝড়। সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে ৩০০০ জনকে। ইতিমধ্যেই দু’জনের খোঁজ নেই। ফিজির আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে ঝড় এগোচ্ছে ১৮০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা বেগে। রাতেই টংগায় আছড়ে পড়বে সেই ঝড়।

কিছুদিন আগেই সাইক্লোন গিনায় তছনছ হয়ে গিয়েছে ওই এলাকা। সমুদ্রের চেহারা ক্রমশ উত্তাল হচ্ছে। একাধিক বাড়ী ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে চাষের জমিতেও। সমুদ্রতট থেকে সবাইকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

গ্রামের পর গ্রাম জলমগ্ন। জায়গায় জায়গায় পড়ে আছে গাছ। তবে প্রশাসন জানিয়েছে, যতটা আশঙ্কা করা হয়েছিল, ততটা ক্ষতি হয়নি। ফলে গ্রামবাসীদের আস্তে আস্তে বাড়ি ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে। প্রবল বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েই গিয়েছে। তাভেউনি আইল্যান্ডে প্রায় ১৯,০০০ মানুষের বাস। কোনও বাড়িতেই বিদ্যুৎ নেই।

গত বছরের শেষে আমেরিকায় শুরু হয়েছিল বম্ব সাইক্লোনের দাপট। থ্যাঙ্কসগিভিংয়ের ছুটিতে উৎসবের প্রস্তুতি নিচ্ছিল আমেরিকা। তার মধ্যেই ‘বম্ব সাইক্লোন’-এর দাপটে থমকে যায় গোটা দেশ। বহু বিমানবন্দর বন্ধ হয়ে যায়। শুধু ডেনভার আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকেই পঁচ শতাধিক উড়ান বাতিল হয়। তুষারঝড়ে মৃত্যুও হয় একজনের।

২৪ ঘণ্টার মধ্যে হঠাৎ করে অন্তত ২৪ মিলিবার বায়ুচাপ কমে গেলে সেই ঝড়কে ‘বম্ব সাইক্লোনে’ বলা হয়।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।