একাধিক ফিচার নিয়ে ভারতে লঞ্চ করেছে Portronics Harmonics 230 wireless neckband-style হেডফোন। দুটি ভিন্ন রঙের সম্ভারে গ্রাহকরা পাবে এটি। নয়েজ ক্যান্সেলিং ও জল প্রতিরোধ করার মতো একাধিক ফিচারও রয়েছে Portronics এর হেডফোনে।৯০০ টাকা ছাড়ে গ্রাহক পাচ্ছে Portronics Harmonics হেডফোন

গ্রাহকদের মধ্যে জনপ্রিয় এই হেডফোনে থাকছে CVC 8.0 noise reduction technology এর ব্যবস্থা। যার ফলে বাইরের অবাঞ্ছিত আওয়াজ থেকে খুব ভালো ভাবে গান এবং কথা বলা উপভোগ করতে পারবে গ্রাহক। এছাড়াও থাকবে দ্রুত চার্জিং এর ব্যবস্থা। কোম্পানি দাবি করেছে ফুল চার্জের ফলে টানা ৭ ঘণ্টা পরিষেবা দিতে সক্ষম এই হেডফোন।

১০ মিটার ড্রাইভের সঙ্গে ভালো সংযোগের কারণে ব্লুটুথের ৫.০ ভার্সান দেওয়া হচ্ছে। Portronics Harmonics 230 যে কোনও দিকের জন্য splash resistance এর জন্য IPX4 শংসাপত্র দিয়েছে। গ্রাহকদের এই হেডফোন মিলবে কালো এবং নীল রঙের সম্ভারে।

এই Portronics Harmonics 230 হেডফোনের দাম রাখা হয়েছে ১,৯৯৯ টাকা। কোম্পানির ওয়েবসাইটে দামের উপর গ্রাহককে ৯০০ টাকার একটি বিশেষ ছাড়ও দেওয়া হচ্ছে। তবে এই ছাড়ের বৈধ্যতা কত দিন তা নিয়ে কিছু জানানো হয়নি এখনও পর্যন্ত। গ্রাহকরা তাদের পছন্দের এই হেডফোন বিভিন্ন অনলাইন এবং অফলাইন দোকনগুলি থেকে ক্রয় করেতে পারে। আর সেখেত্রেও গ্রাহকদের জন্য রাখা হয়েছে এই ছাড়ের ব্যবস্থা।

১০ মিটারের একটি ডাইনামিক ড্রাইভার এবং সঙ্গে ২.৪ হার্জ এবং ২.৪৮ হার্জ রিফ্রেস রেট দেওয়া হচ্ছে Portronics Harmonics 230 wireless হেডফোনে। পাশাপাশি দীর্ঘ ৭ ঘন্টার ব্যাটারি পরিষেবা মিলবে ফুল চার্জের ফলে। আবার এর সঙ্গে মাত্র ২০ মিনিট চার্জে ৪ ঘন্টা এবং ৫ মিনিটের চার্জে ২ ঘন্টার প্লে ব্যাক পরিষেবা উপভোগ করতে পারবে ব্যবহারকারী।

বাহ্যিক শব্দ কমিয়ে আনতে সহায়তা করার জন্য এই হেডফোনে রয়েছে CVC 8.0 noise reduction technology। এছাড়াও ডিভাইসগুলির সঙ্গে ভালো সংযগের জন্য থাকছে ব্লুটুথ ৫.০ ভার্সান। The Harmonics 230 তে উৎপাদনের জন্য সিলিকন মেটিরিয়াল ব্যবহার করায় খুব হালকা ওজনের এটি। পাশাপাশি হেডফোনগুলিতে ইয়ারবডের শেষে চুম্বক রয়েছে যাতে ব্যবহারকারীরা সেগুলি একসাথে সংযুক্ত করতে পারেন ।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.