স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: ফের ব্যাংক জালিয়াতির অভিযোগ উঠল৷ এবার ঘটনাস্থল পূর্ব মেদিনীপুরের ভগবানপুর৷ সেখানে শিবাজি পাহাড়ি নামে এক ব্যক্তি প্রতারণার শিকার হয়েছেন৷

তাঁর অভিযোগ, তাঁর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে গায়েব হয়ে গিয়েছে প্রায় ৪৫ হাজার টাকা৷ তাঁর এটিএম কার্ড ব্যবহার করেই এই কাজ করা হয়েছে৷ অথচ সেই এটিএম কার্ড তিনি এখনও হাতে পাননি৷

আরও পড়ুন: জেলাজুড়ে শ্রদ্ধার সঙ্গে পালিত মহরম

যে কার্ড তিনি এখনও হাতে পাননি, তা কীভাবে ব্যবহার করা হল? এই প্রশ্নের উত্তরই এখন খুঁজছেন শিবাজীবাবু৷ স্থানীয় দলাবেড় এলাকার বাসিন্দা এই বিষয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন৷

পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে৷ ব্যাংকেও বিষয়টি জানিয়েছেন শিবাজী পাহাড়ি৷ বিষয়টি চিন্তায় ফেলেছে ব্যাংক কর্তৃপক্ষকেও।

তাঁর দাবি, ভগবানপুরের একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের শাখায় তিনি সেভিংস অ্যাকাউন্ট খুলে ছিলেন৷ ২০১৭ সালে এটিএম কার্ডের আবেদন জানিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু এখনও সেই এটিএম কার্ড হাতে পাননি তিনি।

আরও পড়ুন: কংগ্রেসকে নিজের পায়ে দাঁড়াতে হবে: সোমেন

তাঁর অভিযোগ, অথচ তাঁরই ব্যাংক অ্যাকাউন্ট থেকে এটিএম কার্ড ব্যবহার করে গত ১১ অগস্ট থেকে ৭ দফায় তুলে নেওয়া হয়েছে ৪৪ হাজার ৩০০ টাকা।

চলতি সপ্তাহেই ব্যাংক থেকে টাকা তুলতে যান শিবাজী। চেকে টাকা তুলতে গেলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানায়, তাঁর অ্যাকাউন্টে আর মাত্র ৩২ টাকা রয়েছে। পাসবুক আপডেট করার পরই চোখ কপালে ওঠে তাঁর। এরপর ব্যাংকের ম্যানেজারের কাছে অভিযোগ জানান তিনি।

আরও পড়ুন: রেলের অনুমোদন ছাড়াই জনতার সেবায় পুরসভার রাস্তা

তাঁর দাবি, ব্যাংক ম্যানেজারও জানিয়ে দেন এটিএম কার্ড ব্যবহার করে টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে৷ শিবাজী এটিএম কার্ড হাতে না পাওয়ার কথা জানালে নথি খুলে বসে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। সেখানেও স্পষ্ট হয়ে যায় শিবাজীকে এটিএম কার্ড দেওয়া হয়নি৷

এরপরই টনক নড়ে ব্যাংক কর্তৃপক্ষের। তড়িঘড়ি শিবাজীকে লিখিত অভিযোগ ব্যাংক ও থানায় জানাতে বলা হয়। অভিযোগও জমা করেন শিবাজী। কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনও সুরাহা হয়নি বলে জানিয়েছেন তিনি।

আরও পড়ুন: অবশেষে গ্রেফতার ধর্ষণে অভিযুক্ত সেই ধর্মযাজক