শংকর দাস, বালুরঘাট: করোনা মোকাবিলায় এবার নাট্য উৎকর্ষ কেন্দ্রকেই লেবেল ফোর কোভিড হাসপাতালে উন্নীত করা হল। শুক্রবার থেকে এখানে করোনা রুগীর চিকিৎসাও শুরু হয়ে গিয়েছে। লেবেল-ফোর এই হাসপাতালের আইসিইউ বিভাগে ইতিমধ্যেই উনিশ জনের চিকিৎসা চলছে।

দক্ষিণ দিনাজপুরে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ইতিমধ্যে সতেরোশো’র কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে। দীর্ঘদিন গ্রিন জোনে থাকা এই জেলায় সম্প্রতি সংক্রমণ প্রবলভাবে ছড়িয়ে পড়ছে। তাতে উদ্বেগ বেড়েছে সাধারণ মানুষ থেকে শুরু করে প্রশাসনিক কর্তাদের।

জেলার করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় বেডের সংখ্যা বাড়াতে লেবেল-ফোর কোভিড হাসপাতালের জন্য বালুরঘাট-হিলি জাতীয় সড়কের ধারে নির্মীয়মান সরকারি ইয়ুথ হোস্টেলকে বেছে নিয়েছিল প্রশাসন।

কিন্তু বাচ্চাদের হোম পাশেই থাকায় জুভেনাইল জাস্টিস বোর্ড কোভিড হাসপাতালের বিরোধিতা করে। হাইকোর্টে মামলা করা হলে সিদ্ধান্ত বদল করা হয়।

অবশেষে কোভিড হাসপাতালের জন্য বেছে নেওয়া হয় নাট্য উৎকর্ষ কেন্দ্রকে। আগে বালুরঘাটে প্রয়াস আত্রেয়ীর লেবেল-থ্রি কোভিড হাসপাতাল থাকলেও সেখানে বেডের সংখ্যা ছিল মাত্র পঁচিশটি। এবার সেটিকে বন্ধ করে হোসেনপুর এলাকায় অবস্থিত নাট্য উৎকর্ষ কেন্দ্রকে লেবেল ফোরে অত্যাধুনিক কোভিড হাসপাতাল করা হয়েছে।

দক্ষিণ দিনাজপুরের মুখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিক ডাঃ সুকুমার দে জানিয়েছেন যে, নাট্যউৎকর্ষ হাসপাতালে ডায়ালিসিস পালস-অক্সিমিটার সিসিইউ ভেন্টিলেটর ও আরও-প্ল্যান্ট সহ অত্যাধুনিক চিকিৎসার সমস্ত পরিকাঠামো রাখা হয়েছে। এই হাসপাতালে সাত জন নোডাল চিকিৎসক থাকছেন।

তাঁদের পাশাপাশি অন্যান্য চিকিৎসকরাও রুগী পরিষেবা দিবেন। শুক্রবার সকাল অবধি জেলায় মোট ১৬২৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তাঁদের মধ্যে ১০৮৪ জন সম্পূর্ণ সুস্থ হয়ে গিয়েছেন বলেও জানিয়েছেন তিনি।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা