বিশাখাপত্তনম: এলিমিনেটরে হায়দরাবাদের সূর্যাস্তের পর শুক্রবার দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে চেন্নাই সুপার কিংসের সামনে দিল্লি ক্যাপিটালস৷ নাম বদলে ভাগ্য সুপ্রন্ন হয়েছে দিল্লির৷ ডেয়ারডেভিলস থেকে ক্যাপিটালস হয়ে প্রথমবার আইপিএলে ফাইনালের দোরগোড়ায় দিল্লি৷ টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত চেন্নাই সুপার কিংস অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনির৷

প্রথম কোয়ালিফায়ারে ঘরের মাঠে মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কাছে হেরে দিল্লির সামনে ধোনির সুপার কিংস৷ ফাইনাল থেকে মাত্র এক কদম দূরে গতবারের চ্যাম্পিয়নরা৷ চলতি আইপিএলে লিগে দিল্লিকে দু’বারই হারিয়েছে চেন্নাই সুপার কিংস৷ কিন্তু এবার নিরপেক্ষ ভেন্যুতে মুখোমুখি সিএসকে-ডিসি৷ বুধবার বিশাখাপত্তনমে এসিএ-ভিডিসিএ স্টেডিয়ামে হায়দরাবাদকে রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ে হারিয়েছে দিল্লি৷ কিন্তু সুপার সানডে ফাইনালের জন্য ধোনিদের বাধা টপকাতে হবে সৌরভ-পন্টিংয়ের মস্তিষ্ক দিল্লি ক্যাপিটালসকে৷

লিগে তিন নম্বরে শেষ করে প্লে-অফে কোয়ালিফাই করে দিল্লি ক্যাপিটালস৷ আর দ্বিতীয় স্থানে শেষ করে প্লে-অফে ওঠে চেন্নাই সুপার কিংস৷ লিগে দু’বার ‘দিল্লি জয়’ করলেও আজকের লড়াইকে ধাওয়ান-পন্তদের হালকাভাবে নেওয়ার ভুল করবে না ধোনিবিগ্রেড৷ তবে তিনবারের চ্যাম্পিয়নদের বিরুদ্ধে দিল্লির লেগ-স্পিনার অমিত মিশ্রের সাফল্য চিন্তায় রাখছে ধোনিদের৷

যদিও এই লড়াইকে অনেকে ধোনি ভার্সেস পন্ত বলে মনে করছে৷ সিএসকে ব্যাটসম্যান শেন ওয়াটসন, সুরেশ রায়না, অম্বাতি রায়ডু ও ধোনির বিরুদ্ধে লড়াই দিল্লি বোলারদের৷ তবে স্পিনারের বিরুদ্ধে ওয়াটসনের রেকর্ড মোটেই ভালো নয়৷ আইপিএলে পাঁচবার মিশ্রের শিকার হয়েছেন ওয়াটসন৷ রায়না ও জাদেজাকেও চারবার আউট করেছেন দিল্লির এই লেগ-স্পিনার৷

এদিন অবশ্য আগের ম্যাচের দল অপরিবর্তিত রাখে দিল্লি ক্যাপিটালস৷ এই পিচেই সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে ৬ উইকেটে হারিয়ে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে পৌঁছয় দিল্লি৷ চেন্নাই অবশ্য আগের ম্যাচের দলে এদিন একটি পরিবর্তন করেছে৷ ওপেনার মুরলী বিজয়েের পরিবর্তে দলে এসেছেন শার্দুল ঠাকুর৷

দিল্লি ক্যাপিটালস: পৃথ্বী শ, শিখর ধাওয়ান, শ্রেয়স আয়ার (ক্যাপ্টেন), কলিন মুনরো, ঋষভ পন্ত, অক্ষর প্যাটেল, শারফেন রাদারফোর্ড, কিমো পল, অমিত মিশ্র, ট্রেন্ট বোল্ট ও ইশান্ত শর্মা

চেন্নাই সুপার কিংস: শেন ওয়াটসন, ফ্যাফ ডু’প্লেসি, সুরেশ রায়না, অম্বাতি রায়ডু, এমএস ধোনি (ক্যাপ্টেন), ডোয়েন ব্র্যাভো, রবীন্দ্র জাদেজা, দীপক চাহার, হরভজন সিং, শার্দুল ঠাকুর ও ইমরান তাহির৷