মুম্বই: সিএসকে জার্সিতে মহেন্দ্র সিং ধোনির মাইলস্টোন ম্যাচ স্মরণীয় করে রাখলেন সতীর্থরা৷ দুরন্ত পারফরম্যান্সে পঞ্জাব কিংস-কে ৬ উইকেটে হারিয়ে ২০২১ আইপিএলে প্রথম জয়ের স্বাদ পেল তিনবারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাই সুপার কিংস৷ সহজ টার্গেট তাড়া করে জয় তুলে নেয় ইয়েলোবিগ্রেড৷ এটা ছিল সিএসকে ক্যাপ্টেন মহেন্দ্র সিং ধোনির ইয়েলো জার্সিতে ২০০তম ম্যাচ৷ মাহির মাইলস্টোন ম্যাচ জিতে স্মরণীয় করে রাখল সুপার কিংস৷

চেন্নাইকে জয়ের রাস্তা তৈরি করে দিয়েছিলেন বোলাররা৷ শুক্রবার ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে টস জিতে প্রথমে বোলিং করে সুপার কিংস৷ দীপক চাহারের দুরন্ত বোলিংয়ে পঞ্জাব কিংস-কে মাত্র ১০৬ রানে বেঁধে রাখল চেন্নাই৷ ৪ ওভারে মাত্র ১৩ রান দিয়ে ৪ উইকেট নিয়ে পঞ্জাব ইনিংসের মেরুদণ্ড ভেঙে দেন বছর আঠাশের এই ডানহাতি পেসার৷ চাহারই সুপার কিংসের জয়ের রাস্তা তৈরি করে দেন৷ বাকি কাজটুকু করেন ব্যাটসম্যানরা৷

১০৬ রান তাড়া করে ২৬ বল বাকি থাকতেই ৬ উইকেট ম্যাচ জিতে নেয় চেন্নাই সুপার কিংস৷ রান তাড়া করতে নেমে শুরুতেই রীতুরাজ গায়কোয়াড শুরুতেই আউট হলেও সুপার কিংসকে বৈতরণী পার করান ফ্যাফ ডু’প্লেসিস ও মোয়েন আলি৷ মহম্মদ শামি পরপর দু’ বলে সুরেশ রায়না ও অম্বাতি রায়ডুকে ডাগ-আউটে ফেরালেও ততক্ষণে জয়ের দোরগোরায় পৌঁছে গিয়েছে চেন্নাই৷ সুপার কিংসের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৬ রান করেন আলি৷ ৩১ বলের ইনিংসে সাতটি বাউন্ডারি ও একটি ছক্কা হাঁকান তিনি৷ এছাড়া ৩৩ রান করেন ডু’প্লেসিস৷

এর আগে প্রথম ব্যাটিং করে চাহারের বোলিংয়ের সামনে অসহায় আত্মসমপর্ণ করে পঞ্জাব কিংসের টপ-অর্ডার৷ইনিংসের চতুর্থ ডেলিভারিতে দুরন্ত লেগ-কাটারে ময়াঙ্ক আগরওয়ালের অফ-স্টাম্প নড়িয়ে দেন তিনি৷ খাতা খোলার আগেই ডাগ-আউটে ফেরেন ময়াঙ্ক৷ তৃতীয় ওভারে রবীন্দ্র জাদেজার দুরন্ত থ্রো-তে রান-আউট হয়ে ডাগ-আউটের পথে হাঁটা লাগান পঞ্জাব ক্যাপ্টেন রাহুল৷ প্রথম ম্যাচে ৯১ রানের ইনিংস খেলা রাহুল এদিন মাত্র ৫ রান করেন৷

পঞ্চম ওভারের দ্বিতীয় ডেলিভারিতে ক্রিস গেইলকে তুলে নিয়ে পঞ্জাবকে মোক্ষম ধাক্কা দিয়েছিলেন চাহার৷ মাত্র ১০ রান করে ডাগ-আউটে ফেরেন ‘দ্য ইউনিভার্স বস’৷ একই ওভারের চতুর্থ ডেলিভারিতে নিকোলাস পুরানকে তুলে নিয়ে পঞ্জাব কিংস-কে ব্যাকফুটে ঠেলে দেন চাহার৷ মাত্র ১৯ রানে চার উইকেট হারায় প্রীতির দল৷ সপ্তম ওভারের দ্বিতীয় ডেলিভারিতে দীপক হুডাকে ডাগ-আউটে ফিরিয়ে পঞ্জাব ইনিংসের কফিনে শেষ পেরেকটি পুঁতে দেন চাহার৷ এটাই আইপিএল সেরা বোলিং চাহারের৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.